পোপকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান ট্রুডোর

0
68

খবর৭১ঃ কানাডায় বন্ধ হয়ে যাওয়া আদিবাসী স্কুলের দুটি গণকবরে ৭৫১টি অচিহ্নিত মরদেহ খুঁজে পাওয়ার ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

এ ঘটনায় ক্যাথলিক চার্চকে দোষারোপ করে খ্রিস্টধর্মের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু পোপকে কানাডায় এসে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। শুক্রবার অটোয়ায় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এ আহ্বান জানান ট্রুডো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে পোপের সঙ্গে সরাসরি কথা বলে বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবনের জন্য বলেছি। তাকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি এটা শুধু একটি ক্ষমা প্রার্থনা নয়, এটা হলো কানাডার আদিবাসী এবং মাটির কাছে ক্ষমা চাওয়া।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি জানি ক্যাথলিক চার্চ নেতৃত্ব বিষয়টি দেখছেন এবং পরবর্তী পদক্ষেপের বিষয়ে খুবই আন্তরিকভাবে কাজ করছেন।’

এর আগে এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, তিনি সাসকাচেওয়ানে আবিষ্কার নিয়ে গভীরভাবে দুঃখিত। তার মতে, আদিবাসীরা যে পদ্ধতিগত বর্ণবাদ, বৈষম্য ও অন্যায়ের শিকার হয়েছিল, এগুলো তারই লজ্জাজনক স্মৃতি।

বৃহস্পতিবার কানাডার সাসকাচেওয়ান প্রদেশে বন্ধ হয়ে যাওয়া একটি আবাসিক আদিবাসী স্কুলে ৭৫১টি অচিহ্নিত কবর শনাক্ত হয়। তারও এক সপ্তাহখানেক আগে ব্রিটিশ কলম্বিয়ার একটি বন্ধ হয়ে যাওয়া স্কুল থেকে শনাক্ত হয়েছিল ২১৫টি কবর।

উনবিংশ ও বিংশ শতাব্দীতে কানাডার আবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে বাধ্যতামূলক বোর্ডিং স্কুল ছিল। সরকার ও ধর্মবিষয়ক কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পরিচালিত এসব স্কুলে জোর করে আদিবাসী শিশুদের এনে রাখা হতো।

ধারণা করা হয়, ওইসব আবাসিক স্কুলে ছয় হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছিল। এর জন্য সেখানকার অস্বাস্থ্যকর পরিবেশকে দায়ী করা হয়।

এ ছাড়া, শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের কারণে অনেক শিক্ষার্থীই পালিয়ে গিয়েছিল। গত মাসে বিশেষ ধরনের রাডার ব্যবহার করে অচিহ্নিত কবর খোঁজা শুরু করে কাউয়েসেস। গত বৃহস্পতিবার তারা প্রথম ধাপে অনুসন্ধানের ফলাফল ঘোষণা করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here