শুরু হলো তরুণ ফুটবলারদের হ্যালো সুপারস্টারস ই-ট্যালেন্ট হান্ট

0
485

খবর ৭১: জাতীয় দলের সাবেক দুই অধিনায়ক জাহিদ হাসান এমিলি ও মামুনুল ইসলাম। সাবেক এই তারকা ফুটবলাররা অনূর্ধ্ব-১৫ পর্যায়ের ফুটবলারদের বাছাই করবেন। ভারত ও বাংলাদেশ থেকে ১২ জন সৌভাগ্যবান ফুটবলার আগামী বছর বিশ্বখ্যাত ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে প্রাক মৌসুমে এক মাসের প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন। মালয়েশিয়ার রাজপরিবার টুংকু হারুন অর রশিদ ফুটবল একাডেমির সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের সমঝোতা রয়েছে। টুংকু একাডেমির সঙ্গে চুক্তির মাধ্যমে হ্যালো সুপারস্টারস বাংলাদেশ ও ভারত থেকে প্রতিভাবানরা রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। সেই সাথে সহস্রাধিক উদীয়মান ফুটবল খেলোয়াড়দের তালিকা ক্রীড়া মন্ত্রণালয় তথা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন’কে হস্তান্তর করা সম্ভব হবে যা দেশের ফুটবল কে এগিয়ে নিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে আশা ব্যক্ত করা হয়।

হ্যালো সুপারস্টারস একটি অনলাইন ভিত্তিক অ্যাপ। এই অ্যাপে ১৫ বছর বয়সী ফুটবলাররা তাদের ৪০ সেকেন্ডের ফুটবল শৈলীর ভিডিও আপলোড করবেন। আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অ্যাপে ভিডিও প্রেরণের প্রক্রিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হয় ই-ট্যালেন্ট হান্ট (সিজন-১)। ভারত থেকেও সংযুক্ত ছিলেন এই অনুষ্ঠানে। সংবাদ সম্মেলনে হ্যালো সুপারস্টারস অ্যাপে কীভাবে ভিডিও আপলোড করা হবে তা দেখানো হয়।

গত বছর অক্টোবরে হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন হয়েছিল জাতীয় প্রেস ক্লাবে। সেই সম্মেলনের আট মাস পর আবার সম্মেলনের কারণ সম্পর্কে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও ট্যালেন্ট হান্টের বিচারক জাহিদ হাসান এমিলি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারতের সাবেক ফুটবলাররা কুমিল্লায় একটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছিলাম হ্যালো সুপারস্টারসের প্রচারণার কর্মসূচি হিসেবে। এখন আমাদের ভিডিও রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ভিডিও আপলোডের কর্মসূচি শুরু হয়েছে।’

প্রাথমিক পর্যায়ে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই ভিডিও পাঠানো যাবে। বাংলাদেশ থেকে এমিলি, মামুনুল ইসলাম, কায়সার হামিদ, আব্দুল গাফফাররা ভিডিও দেখে বাছাই করবেন ৷ প্রাথমিক বাছাইয়ের পর সশরীরে পরীক্ষা হবে। আরো কয়েকধাপ পেরিয়ে এরপর চূড়ান্ত ১২ জন সুযোগ পাবেন রিয়াল মাদ্রিদে।

হ্যালো সুপারস্টারসে রেজিস্ট্রেশন করতে ভারতে ১০০ রুপি ও বাংলাদেশে ১৩০ টাকা লাগবে। হ্যালো সুপারস্টারস স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করবে কিনা সেই প্রশ্নও উঠেছে সংবাদ সম্মেলনে। সাবেক জাতীয় তারকা ফুটবলার আব্দুল গাফফার বলেন, ‘আমি, এমিলি, মামুন বিষয়টি পুরোপুরি জেনেই জড়িত হয়েছি। কোনো অস্বচ্ছ বা সঠিক কাজ না হলে আমরা থাকব না।’

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম বলেন, বিশ্বে এবারই প্রথম ভার্চুয়াল ই-ট্যালেন্ট হান্ট ফুটবল প্রতিভা অন্বেষণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অনলাইন প্লাটফর্মের মাধ্যমে দেশের আনাচে-কানাচে থেকে মেধাবী ফুটবলারদের খুঁজে বের করার একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হিসেবে ‘ ই-ট্যালেন্ট হান্ট ফুটবল ’ নামক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে আগামীতে যদি একজন খেলোয়াড়ও জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে পারে তবে এই আয়োজন সার্থক হবে বলা যায়। তরুণ ফুটবলারদের এখানে বাছাই শেষে তাদের ভিসা থেকে শুরু করে সব প্রক্রিয়া তারা দায়িত্ব নিয়ে করে থাকবেন। যাতে আর্থিক কারণে কোন প্রতিভাবান হারিয়ে না যায় তার জন্যই এই ই-অডিশন করছে হ্যালো সুপারস্টারস।

সংবাদ সম্মেলনে হ্যালো সুপারস্টারসের চীফ অপারেটিং অফিসার চিত্রনায়ক নীরব বলেন, যেহেতু হ্যালো সুপারস্টারস অ্যাপটি নতুন তাই এর পরিচিতির জন্য সকলের কাছে বিশেষ করে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চান। যাতে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ই-অডিশনের তথ্য সকলের কাছে পৌঁছে যায়। এই অ্যাপসের মাধ্যমে ইতিমধ্যে কণ্ঠশিল্পীদের প্রতিভা অন্বেষণ ই-অডিশনের কার্যক্রম চলছে। প্রতিযোগী ও ভক্তদের অনুরোধে গানের ই-অডিশনের ভিডিও আপলোডের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। তিনি জানান, প্রায় ৩ হাজারের মতো প্রতিযোগী ভিডিও আপলোডের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেছেন।

হ্যালো সুপারস্টারসের নির্বাহী পরিচালক ইরানের গ্যাজেল মোহসেনজাদেহ জানান,মালয়েশিয়ার জাতির পিতা টংকু আব্দুল রহমানের দৌহিত্র মালয়েশিয়ার রাজপুত্র ‘টংকু হারুন-অর-রশিদ পুত্রা ইবনে টুংকু আনুয়ার সুলতান বাদলিশাহ’ এর মালিকানাধীন টংকু হারুন-অর-রশিদ ফুটবল একাডেমি সাথে বিশ্বখ্যাত ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে চুক্তি রয়েছে। অন্যদিকে হ্যালো সুপারস্টারসের প্রতিষ্ঠাতা এবং স্বপ্নদ্রষ্টা ড. কামরুল আহসানের সাথে চুক্তি হয়েছে হারুন-আর- রশিদ ফুটবল একাডেমির সাথে। ফলে রিয়াল মাদ্রিদে তরুণ ফুটবলারদের প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রে কোন বাধা নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here