রমজানের প্রথম কর্মদিবসে রাজধানী জুড়ে তীব্র যানজট

0
159

খবর ৭১: রমজানের প্রথম কর্মদিবসে রাজধানী জুড়ে তীব্র যানজট দেখা গেছে। সকাল থেকে বিভিন্ন সড়কে যানবাহনের চাপ কম থাকতে দেখা গেলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানবাহন ও যাত্রী পথচারীদের চলাচলে বাড়তে শুরু করেছে।

ফলে বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে নগরবাসী।
শুক্রবার (২৪ মার্চ) থেকে রমজানের প্রথম রোজা শুরু হয়। এরমধ্যে শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি ও রোববার সরকারি ছুটি ছিল। তাই রমজানের প্রথম তিন রোজায় রাজধানীর সড়কগুলো ছিল অনেকটাই ফাঁকা। তবে সোমবার রমজানের প্রথম কর্মদিবস হওয়ায় সরকারি-বেসরকারি অফিস, আদালত, স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় একসঙ্গে খোলায় সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

সোমবার (২৭ মার্চ) রাজধানীর উত্তরা, হাউজবিল্ডিং, বিমানবন্দর হয়ে খিলক্ষেত বিশ্বরোড হয়ে রেডিসনের সামনে দিয়ে বনানী মহাখালী পর্যন্ত সড়কে, অন্যদিকে, মহাখালী থেকে সাতরাস্তা, মগবাজার হয়ে রমনা, মৎসভবন এবং মহাখালী থেকে জাহাঙ্গীর গেট হয়ে ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার হয়ে বাংলামোটর-শাহবাগ হয়ে মৎসভবন-প্রেসক্লাব পর্যন্ত যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ দেখা গেছে। এছাড়া খিলক্ষেত থেকে কুড়িল হয়ে নতুনবাজার বাড্ডা, রামপুরা, মালিবাগ হয়ে গুলিস্তান পর্যন্ত সড়কেও যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে, সড়কে তীব্র যানজটের কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও পথচারীরা। অনেকেই স্থবির হয়ে থাকা যানবাহন থেকে নেমে পায়ে হেঁটে রওয়ানা করেছেন কর্ম ও গন্তব্যস্থলে।

হিমেল নামে এক যাত্রী জানান, দুই ঘণ্টা আগে বের হয়েও উত্তরা থেকে নাবিস্কো পর্যন্ত যেতে পারলাম না। ফলস্বরুপ ক্লাস করতে পারিনি। নাবিস্কো গিয়ে যা দেখলাম তা হলো মহাখালী টার্মিনালের সামনে দুই লেন অবৈধ পার্কিং আর নাবিস্কোতে বাসগুলোর স্লো ইউটার্ন। এরপর থেকে কোনো জ্যাম নাই।

মনির হোসেন নামে এক ব্যক্তি জানান, রাজধানীতে প্রতিদিন এমন যানজট সৃষ্টি হওয়ার কারণ কি সেটা কেউ কি বের করতে পারেনি এখনও? রাজধানীর যানজটের সমস্যা সমাধানে প্রশাসনের কোনো কার্যকরী ভূমিকা বা পদক্ষেপ নেই।

এদিকে, তীব্র যানজটে গন্তব্যে যেতে ভোগান্তিতে পড়েন নগরবাসী। একই জায়গায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় পার করতে হচ্ছে। এতে যাত্রী ও পথচারীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

ভুক্তভোগীরা বলছেন, ঢাকা শহরের যানজট প্রতিনিয়তই বাড়ছে। এখন রাস্তায় আর সময় বলে কোনো কথা নেই। কারণ ছাড়াই সড়কে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। যাত্রী-পথচারী, চালকেরা ও পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সবাই মিলে পদক্ষেপ নিলে ও ট্রাফিক আইন মেনে চললে সড়কের এ যানজট অনেকটা কমে আসতো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here