আবাসিকে গ্যাসের দাম বাড়ল প্রায় ২৩ শতাংশ

0
32

খবর৭১ঃ আবাসিকে ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের দাম ২২ দশমিক ৭৮ শতাংশ অর্থাৎ প্রতি ঘন মিটারে ৯ টাকা ৭০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১১ টাকা ৯১ পয়সা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন-বিইআরসি। ফলে দুই চুলার গ্যাসের মাসিক দাম এখন ১ হাজার ৮০ টাকা, যা আগে ছিল ৯৭৫ টাকা। আর এক চুলার গ্যাসের মাসিক দাম এখন ৯৯০ টাকা, যা আগে ৯৫০ টাকা ছিল।

রবিবার দুপুর তিনটার দিকে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ দর ঘোষণা করে বিইআরসি। নতুন দর ঘোষণা করেন বিইআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবু ফারুক।

এদিকে আবাসিকে নন প্রিপেইডের পাশাপাশি বাড়ানো হয়েছে প্রিপেইড মিটারের গ্যাসের দামও। তবে সিএনজিচালিত গাড়ির গ্যাসের দাম বাড়েনি।

বিইআরসির ঘোষণা অনুযায়ী, প্রিপেইড মিটার গ্রাহকদের খরচ বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ। প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দর ১২ টাকা ৬০ পয়সা থেকে বেড়ে ১৮ টাকার বেশি হয়েছে।

আর ক্যাপটিভ বিদ্যুতে দর বেড়েছে সাড়ে ১৫ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি বেড়েছে সার কারখানার গ্যাসের দর। এ খাতে দর বেড়েছে ২৫৯ শতাংশ। এখানে ঘনমিটার গ্যাস ৪ টাকা ৪৫ পয়সা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৬ টাকা।

এছাড়া, বৃহৎ শিল্পে ১১ দশমিক ৯৬ শতাংশ, বিদ্যুতে ১২ শতাংশ, ক্যাপটিভে ১৫ দশমিক ৫ শতাংশ দাম বাড়ানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম (সরকারি, আইপিপি ও রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র) ৫ টাকা ২ পয়সা, ক্যাপটিভের (ক্যাপটিভ পাওয়ার প্ল্যান্ট, ক্ষুদ্র বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং বাণিজ্যিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র) দাম ১৬ টাকা, সারে ১৬, শিল্পখাতের মধ্যে বড় শিল্পে ১১ টাকা ৯৮ পয়সা, মাঝারি শিল্পে ১১ টাকা ৭৮ পয়সা এবং ক্ষুদ্র, কুটির ও অন্যান্য শিল্পে ১০ টাকা ৭৮ পয়সা করা হয়েছে।

এ ছাড়া চা শিল্পে ১১ টাকা ৯৩ পয়সা, বাণিজ্যিক হোটেল, রেস্টুরেন্ট এবং অন্যান্য খাতে ২৬ টাকা ৬৪ পয়সা করা হয়েছে। তবে সিএনজি আগের মতোই অপরিবর্তিত ৪৩ টাকায় রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here