সৈয়দপুরের বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নে লটারীর মাধ্যমে ইজিপিপি উপকারভোগী নির্বাচন সম্পন্ন

0
41

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে ২০২১-২০২২ অর্থবছরে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) উপকারভোগী যাচাই- বাছাই ও লটারীর মাধ্যমে উপকারভোগী নির্বাচন শুরু হয়েছে। গতকাল বুধবার (৫ জানুয়ারী) উপজেলার তিন নম্বর বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের আয়োজনে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির আওতায় ওই সুবিধাভোগী যাচাই-বাছাই ও লটারীর মাধ্যমে সুবিধাভোগী নির্বাচন সম্পন্ন করা হয়।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মো. আজমল হোসেন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. সানজিদা বেগম লাকী।
বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শ্রী প্রণোবেশ চন্দ্র বাগচী’র সভাপতিত্বে লটারী মাধ্যমে উপকারভোগী নির্বাচনকালে বক্তব্য দেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মো. আবু হাসনাত সরকার। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে সৈয়দপুর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার (ইউআরডিও) মো. আল-মিজানুর রহমান, বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন পরিষদ সচিব মো. আহসান হাবীবসহ সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
পরে প্রধান অতিথি সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন লটারীর মাধ্যমে উপকারভোগী নির্বাচনের শুভ উদ্বোধন করেন।
বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচির উপকারভোগীর জন্য ইউনিয়নের নয়টি ওয়ার্ডের পুরাতন ও নতুন মিলে ছয় শতাধিক আবেদন জমা পড়ে। এর মধ্যে থেকে লটারীর মাধ্যমে ১৭৮জন উপকারভোগীকে নির্বাচন করা হয়েছে।
সৈয়দপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি ২০২১-২০২২ অর্থবছরে অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) আওতায় সৈয়দপুর উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে সর্বমোট ১ হাজার ২১৭জন উপকারভোগী নির্বাচন করা হবে। এদের মধ্যে উপজেলার এক নম্বর কামারপুকুর ইউনিয়নে ২১৯ জন, দুই নম্বর কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নে ২৮০ জন, তিন নম্বর বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নে ১৭৮ জন, চার নম্বর বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ৩১৮ জন এবং পাঁচ নম্বর খাতামধুপুর ইউনিয়নে ২২২ জন উপকারভোগী রয়েছে। উপকারভোগীরা প্রথম পর্যায়ে ৪০ দিন কাজ কবরেন। মজুরী হিসেবে প্রতিদিন তারা ৪০০ টাকা হারে মজুরী পাবেন। উপকারভোগী মজুরী জিটুপি পদ্ধতিতে পরিশোধ করা হবে। অর্থাৎ উপকারভোগীদের বিকাশ অথবা নগদে একাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here