সৈয়দপুরে পিকআপে করে ছয়টি গরু চুরি: ৫০ কিঃ মিঃ ধাওয়া করে উদ্ধার

0
74

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিিিনধ ॥
নীলফামারীর সৈয়দপুরে চোরাই গরুবহনকারী একটি পিকআপ ভ্যানের পিছনে প্রায় ৫০ কিলোমিটার ধাওয়া করে ছয়টি চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার করা হয়েছে। গত শুক্রবার গভীর রাতে নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার টেঙ্গনমারী এলাকা থেকে চুরি যাওয়া গরুগুলো উদ্ধার করা হয়। তবে চোরের দল পিকআপ থেকে চোরাই একটি একটি করে গরু ফেলে দিয়ে পিকআপ নিয়ে পালিয়ে গেছে। এতে গরুগুলোর শরীরে জখমপ্রাপ্ত হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সৈয়দপুর শহরের কুন্দল জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মো. শফিকুল ইসলাম ট্যাপা (৫০)। তিনি বাড়ির পাশে একটি গরুর খামার গড়ে তুলেছেন। তাঁর গরুর খামারে বেশ কয়েকটি দুধেল গাভী ও বাছুর গরু রয়েছে। ঘটনার দিন গত শুক্রবার রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে ৭/৮ জনের গরু চোরের দল একটি পিকআপ ভ্যান নিয়ে তার বাড়িতে হানা দেয়। গরু চোরের দল গৃহকর্তার বাড়ি সংলগ্ন সৈয়দপুর- দিনাজপুর সড়কের পাশে তাদের নিয়ে আসা পিকআপ ভ্যানটি দাঁড় করে রেখে তার (শফিকুল ইসলাম) গোয়াল ঘর থেকে তিনটি দুধেল গাভী ও তিন বাছুর গরু বের করে ওই পিকআপ ভ্যানে তুলে। এ সময় একটি বাছুর গরু আকস্মিক ডাক চিৎকার করে উঠলে গৃহকর্তা ঘটনাটি টের পেয়ে বাড়ি বাইরে বেরিয়ে আসেন। এ সময় তিনি বাড়ি গোয়াল ঘরের মধ্যে গরু দেখতে না পেরে এবং সামনে পিকআপ ভ্যানে গরু তুলতে দেখে চিৎকার দেন। তার আর্তচিৎকারে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে সামনের থাকা অ্যাম্বুলেন্স চালক রুহুল ইসলাম, রাব্বীসহ সেখানে থাকা আরো কয়েকজন এলাকাবাসী দ্রুত ছুঁটে আসেন। পরবর্তীতে তারা অ্যাম্বুলেন্স ও মোটরসাইকেলে নিয়ে চোরাই গরু বহনকারী পিকআপ ভ্যানটির পিছনে ধাওয়া করেন। এ অবস্থায় চোরের দল চোরাই গরু বহনকারী পিকআপটি নিয়ে সৈয়দপুর-দিনাজপুর বাইপাস হয়ে নীলফামারীর জলঢাকার দিকে যেতে থাকে। এর এক পর্যায়ে অবস্থা বেগতিক দেখে চোরেরা প্রায় ৫০ কিলোমিটার যাওয়ার পর জলঢাকার টেংগনমারি এলাকায় চলন্ত পিকআপ ভ্যান থাকা একটি একটি করে গরু ফেলে দিয়ে পিকআপ ভ্যানটি নিয়ে দ্রুতগতিতে পালিয়ে যায়। আর চলন্ত পিকআপ ভ্যান থেকে গরুগুলো ফেলে দেয়ায় সে সবের শরীরে মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এ সব গরু মূল্য আনুমানিক চার লাখ টাকা ।
গরুর মালিক শফিকুল ইসলাম ট্যাপা বলেন, অন্যের দেয়া একটি পালিত গরু থেকে আজ তার খামারে ৮/১০টি গরু হয়েছে। সারাদিন তিনি গরুগুলোর দেখভাল করেন। ওই খামারের আয়েই তার গোটা পবিবারের সমস্ত ভরণপোষণ চলে। আর চোরেরা পিকআপ থেকে গরুগুলো ফেলে দেয়ায় সে সব শরীরে চামড়া ছিঁলে যাওয়ারসহ মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। সকালে তিনি একজন পশু চিকিৎসক ডেকে এনে সে সবের চিকিৎসা দিয়েছেন। তারপরও গরুগুলো ঠিকভাবে খাচ্ছে না। আর একটি গরু উঠে দাঁড়িয়ে থাকতে পাচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here