আগামী ৭ অক্টোবর বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেবেন ভারতের দুই দক্ষিণী তারকা সামান্থা আক্কিনেনি ও নাগা চৈতন্য। দাম্পত্য জীবনের ইতি টানবেন ঠিক চার বছর আগে যেদিন বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তারা। কিন্তু তার চার দিন আগেই ডিভোর্সের ঘোষণা দিলেন এ দুই তারকা। গত চার মাস ধরেই চৈতন্য ও সামান্থার বিচ্ছেদের গুঞ্জন বাতাসে ভাসছিল। তবে এ দুই তারকার ভক্ত-অনুরাগীরা খবরটি সত্য হোক কখনই চাইছিলেন না। দক্ষিণে এ দম্পতিকে ‘আদর্শ জুটি’ বলা হতো। কিন্তু সেসব গুঞ্জনকে সত্যিতে রূপ দিয়ে ভক্তদের হতাশ করলেন সামান্থা-চৈতন্য। এবার বিয়েবিচ্ছেদের খবরকে ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছে সামান্থার ভরণ-পোষণের খবর। এতদিন ধরে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর ছিল— বিচ্ছেদের পর চৈতন্য থেকে ৫০ কোটি রুপি ভরণ-পোষণের দাবি করেছিলেন সামান্থা। তবে এখন শোনা যাচ্ছে— ৫০ কোটি নয়, ভরণ-পোষণের জন্য সামান্থাকে ২০০ কোটি রুপি দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু বিয়ে ভাঙার কারণে নাগা চৈতন্যের কাছ থেকে সেই বিপুল অর্থ নিতে নারাজ সামাস্থা। সামান্থা জানিয়েছেন, চৈতন্যের থেকে একটি রুপিও নেবেন না তিনি! এতে তার বিন্দুমাত্র আগ্রহ নেই। এ নায়িকার ঘনিষ্ঠ সূত্র ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন— ‘সামান্থা এ সম্পর্কটা থেকে শুধু বন্ধুত্ব ও ভালোবাসা চেয়েছিল। বিয়েটাই ভেঙে গেল। ও একটা টাকাও নেবে না।’ ২০১০ সালে তেলেগু ছবি ‘ইয়ে মায়া চেসাবে’তে একসঙ্গে কাজ করেন সামান্থা রুথ প্রভু ও নাগা চৈতন্য। সেই থেকেই প্রেম। সাত বছর প্রেম করে ২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর হিন্দু রীতিতে এবং পর দিন খ্রিস্টান রীতিতে বিয়ে করেন দুজন। আর শনিবার চার বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানলেন তারা। বিবৃতিতে সামান্থা ও চৈতন্য দুজেনই বলেছেন— ‘অনেক আলোচনা ও চিন্তাভাবনার পর আমরা স্বামী-স্ত্রী থেকে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং নিজেদের পথ বেছে নিয়েছি। আমরা খুবই ভাগ্যবান যে, এক দশকের বেশি সময়ের বন্ধুত্ব আমাদের। এটিই আমাদের বন্ধুত্বের প্রাণশক্তি ছিল। আশা করি ভবিষ্যতেও এই বিশেষ বন্ধনটি অটুট থাকবে। এই কঠিন সময়ে আমাদের সমর্থন দেওয়ার জন্য আমরা সবাইকে অনুরোধ করছি। আমাদের একটু নিজের মতো থাকার সুযোগ দিন, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা দিন, যাতে মানিয়ে নিতে পারি।’

0
27

খবর৭১ঃ আগামী ৭ অক্টোবর বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেবেন ভারতের দুই দক্ষিণী তারকা সামান্থা আক্কিনেনি ও নাগা চৈতন্য। দাম্পত্য জীবনের ইতি টানবেন ঠিক চার বছর আগে যেদিন বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তারা।

কিন্তু তার চার দিন আগেই ডিভোর্সের ঘোষণা দিলেন এ দুই তারকা।

গত চার মাস ধরেই চৈতন্য ও সামান্থার বিচ্ছেদের গুঞ্জন বাতাসে ভাসছিল। তবে এ দুই তারকার ভক্ত-অনুরাগীরা খবরটি সত্য হোক কখনই চাইছিলেন না। দক্ষিণে এ দম্পতিকে ‘আদর্শ জুটি’ বলা হতো।

কিন্তু সেসব গুঞ্জনকে সত্যিতে রূপ দিয়ে ভক্তদের হতাশ করলেন সামান্থা-চৈতন্য।

এবার বিয়েবিচ্ছেদের খবরকে ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছে সামান্থার ভরণ-পোষণের খবর।

এতদিন ধরে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর ছিল— বিচ্ছেদের পর চৈতন্য থেকে ৫০ কোটি রুপি ভরণ-পোষণের দাবি করেছিলেন সামান্থা।

তবে এখন শোনা যাচ্ছে— ৫০ কোটি নয়, ভরণ-পোষণের জন্য সামান্থাকে ২০০ কোটি রুপি দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল।

কিন্তু বিয়ে ভাঙার কারণে নাগা চৈতন্যের কাছ থেকে সেই বিপুল অর্থ নিতে নারাজ সামাস্থা। সামান্থা জানিয়েছেন, চৈতন্যের থেকে একটি রুপিও নেবেন না তিনি! এতে তার বিন্দুমাত্র আগ্রহ নেই।

এ নায়িকার ঘনিষ্ঠ সূত্র ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন— ‘সামান্থা এ সম্পর্কটা থেকে শুধু বন্ধুত্ব ও ভালোবাসা চেয়েছিল। বিয়েটাই ভেঙে গেল। ও একটা টাকাও নেবে না।’

২০১০ সালে তেলেগু ছবি ‘ইয়ে মায়া চেসাবে’তে একসঙ্গে কাজ করেন সামান্থা রুথ প্রভু ও নাগা চৈতন্য। সেই থেকেই প্রেম। সাত বছর প্রেম করে ২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর হিন্দু রীতিতে এবং পর দিন খ্রিস্টান রীতিতে বিয়ে করেন দুজন।

আর শনিবার চার বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানলেন তারা। বিবৃতিতে সামান্থা ও চৈতন্য দুজেনই বলেছেন— ‘অনেক আলোচনা ও চিন্তাভাবনার পর আমরা স্বামী-স্ত্রী থেকে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং নিজেদের পথ বেছে নিয়েছি। আমরা খুবই ভাগ্যবান যে, এক দশকের বেশি সময়ের বন্ধুত্ব আমাদের। এটিই আমাদের বন্ধুত্বের প্রাণশক্তি ছিল। আশা করি ভবিষ্যতেও এই বিশেষ বন্ধনটি অটুট থাকবে। এই কঠিন সময়ে আমাদের সমর্থন দেওয়ার জন্য আমরা সবাইকে অনুরোধ করছি। আমাদের একটু নিজের মতো থাকার সুযোগ দিন, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা দিন, যাতে মানিয়ে নিতে পারি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here