ভিডিও নিয়ে মুখ খুললেন পরীমনি

0
41

খবর ৭১: বোটক্লাব কাণ্ডে পরীমনিকে নিয়ে আলোচনা থামছেই না। বরং নতুন মোড় নিয়েছে আলোচনা। অনেকের মনে বিভিন্ন প্রশ্ন জন্ম দিয়েছে। তাহলে কি ফেঁসে যেতে পারেন পরীমনি? এ প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টাও করছেন কেউ কেউ।
সম্প্রতি কিছু ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে পড়েছে নেট দুনিয়ায়। সবশেষ বোট ক্লাবের ভেতরের একটি ক্লিপ প্রকাশ হয়েছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে। মূলত এটি প্রকাশের পরই নানা জল্পনা শুরু হয়েছে পরীমনিকে নিয়ে। ফিল্মপাড়ার অনেকেও ভিন্ন চোখে দেখছেন পরীমনিকে।
সবশেষ প্রকাশ হওয়া ভিডিওকে কিছু একটা পান করতে দেখা গেছে পরীমনিকে। এ প্রসঙ্গে পরীমনি দেশীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘কয়েক সেকেন্ডের বিভ্রান্তিকর অস্পষ্ট ক্লিপ নয়, আমি পুরো ভিডিওটি চাই। শুরু থেকেই বলে আসছি, ক্লাবের ভেতরের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ করার জন্য। যদি কয়েক সেকেন্ড পাওয়া যায়, তাহলে নিশ্চয়ই পুরো ফুটেজই আছে। আমি সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করে আবারও বলছি, দয়া করে পুরো ফুটেজ প্রকাশ করুন। সবাই সত্যটা জানুক কী ঘটেছে সেই রাতে।’
এদিকে পরীমনির দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে নাসির ও অমিকে। বুধবার (২৩ জুন) তাদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছিল মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক কামরুল ইসলাম। শুনানি শেষে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব হাসান। গত ১৩ জুন নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার বিষয়টি জানিয়েছিলেন পরীমনি। ১৩ জুন রাতে দেওয়া স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার চেয়েছিলেন এ অভিনেত্রী। সেদিন রাতে সংবাদ সম্মেলনে অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। জানান, ৮ জুন ঢাকা বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা চালান ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদ।
এ ঘটনায় পরীমনি সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অমির বাসায় অভিযান চালিয়ে তিন নারীসহ গ্রেপ্তার করা হয় নাসির ও অমিকে। উদ্ধার করা হয় এক হাজার পিস ইয়াবা, বিদেশি মদ ও বিয়ার। ডিবির গুলশান জোনের উপপরিদর্শক মানিক কুমার সিকদার বাদী হয়ে বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন নাসির-অমিদের বিরুদ্ধে। ওই মামলায় সাত দিনের রিমান্ড শেষে বুধবার (২৩ জুন) আদালতে তোলা হয়েছিল নাসির-অমিকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here