নজিরবিহীন অস্থিরতা সোনার বাজারে

0
16

খবর৭১ঃ
দেশে সোনার বাজারে নজিরবিহীন অস্থিরতা বিরাজ করছে। করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর দেড় বছরে দেশে ২০ বার দাম ওঠানামা করেছে। আলোচ্য সময়ে ভরিতে সোনার দাম বেড়েছে ১৩ হাজার টাকা। এ সময়ে বিশ্ববাজারেও অস্বাভাবিকভাবে দাম বেড়েছে। বতর্মানে ৭১ হাজার ৯৬৬ টাকায় ২২ ক্যারটের (ভালো মানের) প্রতি ভরি সোনা বিক্রি হচ্ছে।

তবে দাম বৃদ্ধির কারণে পণ্যটির ক্রেতা একেবারে কমে গেছে। উলটো যাদের হাতে মজুত আছে তারা সোনা বিক্রি করে দিচ্ছেন। দুবাইয়ের বাজারে প্রতি গ্রাম সোনা ৫৭ ডলারে বিক্রি হচ্ছে। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা হিসাবে স্থানীয় মুদ্রায় এর দাম ৫৬ হাজার ৫১২ টাকা।

জানতে চাইলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক অর্থ উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, সুনির্দিষ্ট কয়েকটি কারণে বিশ্ববাজারে সোনার দাম ওঠানামা করছে। এরমধ্যে রয়েছে- করোনা সংক্রমণ ও ডলারের ব্যাপক দরপতন। ফলে মানুষ ডলারের বিকল্প হিসাবে সোনায় বিনিয়োগ করছে।

এছাড়া বিভিন্ন দেশে শেয়ারবাজারে অস্থিরতা, বন্ডের সুদহার হ্রাস, ব্যাংকে আমানতের সুদহার হ্রাস প্রভৃতি সোনার দাম বৃদ্ধির কারণ। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য যুদ্ধ এবং মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক অনিশ্চয়তাসহ সবকিছু মিলে বিনিয়োগকারীরা সোনায় বিনিয়োগকে নিরাপদ মনে করছেন।

এতে সোনার চাহিদা ব্যাপক বেড়ে যায়। তবে অর্থনীতি চাঙ্গা হওয়ায় পণ্যটির দাম কমে যায়। তিনি বলেন, দেশের বাজারে দুই কারণে গুরুত্বপূর্ণ পণ্যটির দাম বাড়ছে। প্রথমত বিশ্ববাজারের প্রভাব এবং দ্বিতীয়ত ব্যাগেজ রুলে বিদেশ থেকে স্বর্ণ আসা বন্ধ হওয়া।

জুয়েলারি সমিতির সাবেক সভাপতি গ্রামীণ জুয়েলার্সের মালিক ড. দিলীপ কুমার রায় যুগান্তরকে বলেন, বিশ্ববাজারের কারণেই দেশে সোনার দাম বাড়ছে। মানুষ বিনিয়োগের জন্য সোনা কিনে মজুত করছে। তিনি বলেন, খুব বেশি প্রয়োজন না পড়লেও কেউ আর সোনা কিনছেন না। উলটো যাদের কাছে সোনা ছিল, বাড়তি দামের জন্য তারা বিক্রি করছেন।

দাম কমলে তারা হয়তো আবার কিনবেন। তিনি বলেন, অন্য সব দেশে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে সোনা কিনতে পারে। কিন্তু আমাদের ওই সুবিধা নেই। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে আমাদের কিছুটা তারতম্য হয়। সাধারণত, অর্থনীতিতে অনিশ্চয়তা থাকলে বিনিয়োগকারীরা স্বর্ণে বিনিয়োগ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় মার্কিন ডলার ঝুঁকিতে পড়ে। এজন্য ডলারের দাম পড়ে যাচ্ছে। দেড় বছরে অন্যসব প্রধান মুদ্রার বিপরীতে ডলারের দর ৯ শতাংশ কমেছে। সোনার দামে এর প্রভাব পড়ে। ২০২০ সালের শুরুতে বিশ্ববাজারে প্রতি গ্রাম সোনার দাম ছিল ৪১ ডলার। সোমবার পর্যন্ত তা বেড়ে ৫৭ ডলারে উন্নীত হয়েছে। এ হিসাবে এক বছরে সোনার দাম বেড়েছে ৩৯ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here