২৭ অক্টোবর কুমিল্লায় ভারত-বাংলাদেশ প্রীতি ফুটবল ম্যাচ

0
86

আয়োজনে হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপ

খবর ৭১: এশিয়ার প্রখ্যাত সেলিব্রিটিদের নিয়ে গঠিত হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত প্রীতি ফুটবল ম্যাচ। আগামী ২৭ অক্টোবর বিকেল ৩টায় কুমিল্লার ভাষা সৈনিক শহিদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। ভাতর ও বাংলাদেশের বর্তমান ও সাবেক ফুটবলারা এই ম্যাচে অংশগ্রহন করবেন।
বুধবার (১১ অক্টোবর) বিকেলে কুমিল্লা নগরীর গোল্ডেন স্পুন রেস্টুরেন্টে এক সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানিয়েছেন হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপের বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ও জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী আসিফ আকবর।
আসিফ আকবর বলেন, দেশ বিদেশের গুণীদের সমন্বয়ে গঠিত হ্যালো সুপাস্টার অ্যাপ মহৎ একটি উদ্যোগ নিয়ে পথচলা শুরু করেছিল। তারই অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এতে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অবসরপ্রাপ্ত এবং বর্তমান দলের কয়েকজন এবং ভারতের অবসরপ্রাপ্ত এবং বর্তমান জাতীয় দলের কয়েকজন খেলোয়াড় অংশ নেবেন। ভারতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মেহতাব হোসাইন, বাইচুং ভুটিয়া, রহিম নবী এবং বাংলাদেশ দলের মামুনুল ইসলাম মামুন ও জাহিদ হাসান এমিলির মতো খেলোয়াড়রা ম্যাচটিতে খেলবেন।
খেলাটি দেখতে বাংলাদেশে আসবেন মালয়েশিয়ার জাতির পিতার দৌহিত্র ও গ্লোবাল ফুটবল ক্যাম্পের কর্ণধার টুঙ্কু হারুন্নারাশেদ পুত্রা এবং মালয়েশিয়ার রাজপরিবারের সদস্য ও হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপের ট্রাস্টি তপুয়ান নূর সাজান্না আবদুল্লাহ।
এছাড়াও প্রীতি ম্যাচে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা, ঢাকা-২০ আসনের সংসদ সদস্য বেনজির আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হাবিবুর রহমান, কুমিল্লা ৬ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. মুশফিকুর রহমান ও পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।
আসিফ আকবর আরও বলেন, ওই খেলাকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। দুইদিন কুমিল্লায় এ উপলক্ষে বর্ণিল আয়োজন করা হবে। থাকবে কনসার্ট। যেখানে পারফর্ম করবেন তিনিসহ বাংলাদেশ এবং ভারতের কয়েকজন সংগীতশিল্পী। এ ছাড়াও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে এ উপলক্ষে বর্ণিল শোভাযাত্রা করা হবে।
তিনি আরও বলেন, এই প্রীতি ম্যাচটি দেখার জন্য কোনো দর্শককে টিকিট কাটতে হবে না। শুধুমাত্র মোবাইল ফোনে হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপ ইনস্টল করলেই একটা কোড নম্বর দেখাবে। ওই কোড নম্বরটি গেইটম্যানকে দেখালেই সহজে প্রবেশ করা যাবে গ্যালারিতে। উপভোগ করা যাবে পুরো ম্যাচ।
আসিফ আকবর বলেন, আমাদের হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপের মূল লক্ষ্য হলো বাংলাদেশ এবং ভারত থেকে থেকে স্পেনের রিয়াল মাদ্রিদে খেলোয়াড় পাঠানো হবে প্রশিক্ষণের জন্য। তাতে উপমহাদেশ থেকে বিশ্বমানের ফুটবলার তৈরি হবে। বার্সালোনা, ডর্টমুন্ডের মতো বিশ্বমানের ক্লাবগুলোতে যখন বাংলাদেশের কোনো ছেলে খেলবে, তখন বাঙালি হিসেবে নিজেকে গর্ববোধ করতে পারবো।
সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান ফারুক রোমেন, হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপের অনুষ্ঠান প্রধান নবীন হোসেন, হ্যালো সুপারস্টার অ্যাপের বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক টংকু মুকিত ও পরিচালক আনিসুর রহমান আবুল কাশেম হৃদয় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here