কাসেম সোলাইমানিকে নিয়ে যা বললেন খামেনি

0
23

খবর৭১ঃ ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের প্রয়াত কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ‘বিজয় এবং সহিষ্ণুতার গুপ্ত প্রতীক’। বেঁচে থাকতে তিনি শত্রুদের জন্য যতটা বিপজ্জনক ছিলেন, শাহাদাতের পর তার চেয়ে বেশি বিপদের কারণ হয়েছেন।

কাসেম সোলাইমানি হত্যার দ্বিতীয় বাষিকীতে ইরানের এই সর্বোচ্চ নেতা বলেন, কাসেম সোলাইমানি আজ আশা, আত্মনির্ভরতা, সাহস এবং ধৈর্য ও বিজয়ের গুপ্ত প্রতীক হয়ে দেখা দিয়েছে। অনেকেই সঠিক কথা বলে থাকেন যে, জীবিত সোলাইমানির চেয়ে শহীদ সোলাইমানি শত্রুদের জন্য বেশী বিপদজনক হয়ে উঠেছেন।

আগামী ৩ জানুয়ারি জেনারেল সোলাইমানি দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হবে। এ মুহূর্তে তেহরানসহ ইরানের বিভিন্ন শহরে জেনারেল সোলাইমানির স্মরণে নানা ধরনের অনুষ্ঠান হচ্ছে। সর্বস্তরের মানুষ ক্যারিশমাটিক এই কমান্ডারের প্রতি আন্তরিক শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন।

শনিবার রাজধানী শহর তেহরানে এক অনুষ্ঠানে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, শত্রুরা ভেবেছিল জেনারেল সোলাইমানি, ইরাকি কমান্ডার আবু মাহদি এবং তার সঙ্গীদেরকে হত্যা করলেই সব শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু তাদের রক্তের ধারা শত্রুদের ধারণাকে ভুল প্রমাণ করেছে। আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনারা পালাতে বাধ্য হয়েছে। ইরাক থেকে আমেরিকা কম্ব্যাট সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে এবং সেখানে শুধু তারা সামরিক পরামর্শক রাখবে। তবে বিষয়টি আমাদের ইরাকি ভাইদেরকে অবশ্যই নজরদারি করতে হবে।

আয়াতুল্লাহ আল খামেনি বলেন, ইয়েমেনেও প্রতিরোধকামী যোদ্ধারা এগিয়ে যাচ্ছে, সিরিয়ায় শত্রুরা ভবিষ্যতের ব্যাপারে আশাহত, এবং উপনিবেশ-বিরোধী প্রতিরোধ ফ্রন্ট দুই বছর আগের চেয়েও মধ্যপ্রাচ্যে বর্তমানে অনেক উন্নত অবস্থায় রয়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ এ নেতা বলেন, জেনারেল সোলাইমানি হচ্ছেন অমোচনযোগ্য এবং স্থায়ী বাস্তবতা। পক্ষান্তরে, মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার মতো অন্য হত্যাকারীরা ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে যাবে এবং তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে। অবশ্য তাদেরকে দুনিয়াতে এই হত্যার দায় শোধ করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here