শহরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ॥ সাংবাদিকসহ আহত ৭

0
56
শহরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ॥ সাংবাদিকসহ আহত ৭

মঈনুল হাসান রতন হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ শহরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে সাংবাদিকসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল বুধবার দুপুরে সদর মডেল থানার সামনে এ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। জানা যায়, গত মঙ্গলবার বিকেলে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় বিজয় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সাবেক সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য (এমপি) এডভোকেট আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়ার একটি বক্তব্যকে ঘিরে উত্তেজনা দেখা দেয়। এ সময় তাকে লাঞ্চিতের চেষ্টা চালায় একদল যুবক। পরে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে।
এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার বিকেলে শহরে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসুচির ডাক দেয় আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের দুই গ্রুপ। জেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগ মিলে একটি গ্রুপ এবং জেলা ও পৌর সেচ্ছাসেবকলীগ অন্য গ্রুপ। এক পর্যায়ে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার সামনে দুই গ্রুপ মুখোমুখি হলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৭ জন আহত হন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতৃবৃন্দকে জেলা পরিষদের বাউন্ডারির ভেতরে প্রবেশ করিয়ে সংঘর্ষ প্রতিহত করে। এ সময় ছাত্রলীগ-যুবলীগের গ্রুপটি উত্তেজিত হয়ে হামলার চেষ্টা চালায়। কিন্তু পুলিশের বাঁধার কারণে তারা জেলা পরিষদের ভেতরে প্রবেশ করতে পারেনি। পরে উত্তেজিত ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন শ্লোগান দেয়।
ঘটনার প্রায় ৫ ঘন্টা পর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসান ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উভয় পক্ষের সাথে আলোচনা করে পরিস্থিতি শান্ত করেন। পরে জেলা পরিষদের ভেতরে আটকা পড়া সেচ্ছাসেবকলীগ নেতৃবৃন্দকে প্রায় ৫ ঘন্টা পর উদ্ধার করে পুলিশ প্রহরায় বাসায় পৌঁছে দেয়া হয়।
এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি ইন্সপেক্টর (তদন্ত) দৌস মোহাম্মদ বলেন, ‘উভয় গ্রুপ বিক্ষোভ কর্মসুচি পালন করছিল। এ সময় তাদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই গ্রুপের নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here