রুমায় র্দুগম পাহাড়িদের পরিবহণের সুবিধা না থাকায়,ভিজিএফ’র চাউল বিক্রি

0
243

মংহাইথুই মারমা-বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবানের রুমা ১নং পাইন্দু ইউনিয়নে ৮নং ওর্য়াডে ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের ভিজিএফ’র চাউল র্কাডধারীদের ১৫কেজি চাউল বিতরণ করা হলে র্দুগম পাহাড়িদের পরিবহণের সুবিধা না থাকায় বিক্রি করা হয়েছে ৩৪টি পরিবারের চাউল।
গত (৩রা জুন)সোমবার ভিজিএফ’র চাউল বাজারে বিভিন্ন এলাকাবাসী ও গণমাধ্যমকর্মী এক জোটে চাউল দেখতে পেয়ে, এ বিষয়ে রুমা উপজেলা পরিষদে কার্যলয়ে নির্বাহী অফিসার জনাব শামসুল আলম কাছে মুঠোফোনে ভিজিএফ’র চাউলের বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে, তিনি বলেন,আমি আগামী ১০রা জুন তারিখে আসব,তখন বিস্তারিত তদন্ত করা হবে।আপাতত জব্দ করে রাখেন।
আজ (১০রা জুন) সোমবার সকাল ১১টা দিকে র্নিবাহী অফিসার র্কাযলয়ে এ বিষয়ে সঠিক তদন্তের করার জন্য উপজেলার নির্বাহী অফিসার র্কাযলয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন কৃষি কর্মকর্তা উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিভাগের উপ-সহকারি জনাব,মোহাম্মদ ইউছুফ , ১নং পাইন্দু ইউনিয়নে ৮নং ওর্য়াডে সদস্য(মেম্বার) উচথোয়াই মারমা,পাড়ার প্রধান(কারবারী)উচমং মারমা ও পাড়ারবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।


এ বিষয়ে স্থানীয় ৮নং ওর্য়াডে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য(মেম্বার) উচথোয়াই মারমার কাছে কৃষি কর্মকর্তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ১নং পাইন্দু ইউনিয়নে ৮নং ওর্য়াডের স্থানীয় জনগণের প্রতিনিধি হই,তাই পাড়ারবাসীরা বলেন,যেহেতু অল্প চাউল এবং পরিবহণ ও রাস্তাঘাটের কোন সুযোগ সুবিধা নাই,৩-৪ঘন্টা পথ হেঁটে আসতে হয় সে হিসেবে ভিজিএফ’র চাউল পেলে আপনি একটু বিক্রি করে নিয়ে আসেন,আমরা চাউলের পর্রিবতে টাকা পেলে আমরা সংতুষ্ট হব।
পাড়াবাসীদের বক্তব্য, আমাদের পাড়ার র্দুগম এলাকার হাওয়ার উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদে আসা অসম্ভব,তাই আপনি একটু নিয়ে আসেন।পাড়াবাসীদের কথার মতে তিনি ইডেন রোড এলাকার স্থানীয় দোকানদার উচসিং মারমা নামে এক ব্যবসায়ীকে ৪৭বস্তার অনুমানিক প্রতি বস্তার ৩০কেজি চাউল রয়েছে।বস্তার প্রতি ৪০০টাকা দরে বিক্রি করা হয়েছিল।সেখানে কোন আমাদের কাছে কোন জণপ্রতিধি মেম্বারগণ হায়রানী বা টাকা লেনদেন বিষয়ে আমাদের কোন ঘাটতি দেওয়া হয়নি,তিনি আমাদের সঠিকভাবে অর্থ প্রদান করেছে পেশ করেন।পরে এ বিষয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের জানানো হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here