ভারতে ক্রিকেট দল পাঠানোর ঘোষণা পাকিস্তানের

0
104

খবর ৭১: অবশেষে ভারতে অনুষ্ঠিতব্য ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য জাতীয় দল পাঠানোর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে পাকিস্তান। আগামী অক্টোবর-নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের এই আসর। খবর ডনের।
রবিবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তরের (এফও) জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘পাকিস্তান ক্রমাগত বজায় রেখেছে যে খেলাধুলাকে রাজনীতির সঙ্গে মেশানো উচিত নয়। তাই আমরা আসন্ন আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩-এ অংশগ্রহণের জন্য আমাদের ক্রিকেট দলকে ভারতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ সম্পর্কে কয়েক সপ্তাহের আলোচনার পর এই সিদ্ধান্তটি এসেছে। এতদিন নিরাপত্তার উদ্বেগের কারণে ভারতে দল পাঠানোর বিষয়ে দোটানায় ছিল পাকিস্তান সরকার। তাই অনুমোদন দিতে এতটা দেরি হয়েছে।

এফও’র বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ ভারতে দেশের ক্রিকেট দলের নিরাপত্তা নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ অব্যাহত রেখেছে। আমরা এই উদ্বেগগুলি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এবং ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে জানাচ্ছি। আমরা আশা করি, ভারত সফরের সময় পাকিস্তান ক্রিকেট দলের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘পাকিস্তান বিশ্বাস করে, ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবস্থা তার আন্তর্জাতিক ক্রীড়া-সম্পর্কিত বাধ্যবাধকতা পূরণের পথে বাধা হওয়া উচিত নয়।’

পাকিস্তান ভারতে তার জাতীয় দল পাঠানো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কারণ ভারতও পাকিস্তানে অনুষ্ঠিতব্য এশিয়া কাপে তাদের জাতীয় দল পাঠাতে অসম্মতি জানিয়েছিল। এশিয়া কাপের আয়োজক নিয়ে বিতর্কের পর টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ প্রথম সন্দেহের মধ্যে পড়েছিল, যার জন্য ভারত তার ক্রিকেট দলকে দেশে পাঠাতে অস্বীকার করেছিল।

পরিবর্তে, এশিয়া কাপে ভারতের জাতীয় দল পাঠানোর শর্তে বিশ্বকাপে পাকিস্তান তার জাতীয় দল ভারতে পাঠানোর বিষয়ে রাজি হয়েছে। এর আগে, পাকিস্তান হাইব্রিড মডেলের ভিত্তিতে সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ আয়োজনে সম্মত হওয়ার পর যুদ্ধবিরতি ডাকা হয়।

চলতি বছরের জুনে বিশ্বকাপের সময়সূচী ঘোষণা করার পর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড বলেছিল, বিশ্বকাপের ম্যাচ ভেন্যুসহ ভারতে যে কোনো সফরের জন্য এখনো সরকারি ছাড়পত্র লাগবে।

পিসিবির কমিউনিকেশন ডিরেক্টর সামি উল হাসান এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ম্যাচ ভেন্যুসহ ভারতে যেকোনো সফরের জন্য পাকিস্তান সরকারের ছাড়পত্র প্রয়োজন পিসিবির।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘আমরা নির্দেশনার জন্য আমাদের সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। এই অবস্থানটি আমরা কয়েক সপ্তাহ আগে আইসিসিকে যা বলেছিলাম তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তখন তারা আমাদের সঙ্গে খসড়া সময়সূচী শেয়ার করেছিল এবং আমাদের প্রতিক্রিয়া চেয়েছিল।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here