বিএনপির ৬ আসনে বিজয়ী হলেন যাঁরা

0
112

খবর ৭১: বিএনপির পদত্যাগের পর শূন্য হওয়া ৬টি আসনের উপনির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে তিনটিতে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। বাকি তিনটির একটি জাতীয় পার্টি, একটিতে জাসদ এবং একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

ছয়টি আসন হলো—ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ), বগুড়া-৬ (সদর), বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম), চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর), চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর, নাচোল, ভোলাহাট) এবং ঠাকুরগাঁও-৩ (পীরগঞ্জ ও রাণীশংকৈল)।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের উপনির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। আজ রাতে প্রাপ্ত ফলাফলে জানা গেছে স্বতন্ত্রপ্রার্থী বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত নেতা উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া কলারছড়ি প্রতীক নিয়ে ফের নির্বাচিত হয়েছেন।

উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া পেয়েছেন ৪৪ হাজার ৮১৭ ভোট এবং তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির প্রার্থী (লাঙ্গল) পেয়েছেন নয় হাজার ৫৮০ ভোট।

এ ছাড়াও বিএনপির অপর বহিষ্কৃত নেতা আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি নিখোঁজ স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু আসিফ আহমেদ (মোটারগাড়ি) পেয়েছেন তিন হাজার ২৩৮ ভোট এবং জাকের পার্টির জহিরুল হক জুয়েল (গোলাপ ফুল) পেয়েছেন এক হাজার ৪২৭ ভোট।

বগুড়া : আজ রাত সাড়ে ৯টায় জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম ফলাফল ঘোষণা করেন। বগুড়া সদর-৬ আসনের উপনির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের (নৌকা) রাগেবুল আহসান রিপু ৪৯ হাজার ৩৩৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আব্দুল মান্নান স্বতন্ত্র (ট্রাক) পেয়েছেন ২১ হাজার ৮৬৪ ভোট। এ আসনে মোট চার লাখ ১০ হাজার ৭৪৩ জন ভোটার। ভোট দিয়েছেন ৯১ হাজার ৭৪২ জন। এই আসনে মোট ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দিগ্রাম) আসনে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন (মশাল) ২০ হাজার ৪০৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র আশরাফুল হোসেন আলম (হিরো আলম) পেয়েছেন ১৯ হাজার ৫৭১ ভোট। এই আসনে এবার মোট নয় জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ২৮ হাজার ২৬৯ জন। ভোট পড়েছে ৭৮ হাজার ৫২৪ টি।

ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের উপনির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী লাঙ্গল প্রতীকের হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ। তিনি পেয়েছেন ৮৪ হাজার ৪৭ ভোট, তাঁর নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ গোপাল চন্দ্র রায় পেয়েছেন ৫০ হাজার ৩০৯ ভোট।

আজ রাতে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন ভোট গণনা শেষে এই ফলাফল ঘোষণা করেন। এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল তিন লাখ ২৪ হাজার ৭৪১। ভোটকেন্দ্র ছিল ১২৮টি। ভোট কাস্ট হয়েছে শতকরা ৪৬ দশমিক ৩০ ভাগ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের উপনির্বাচনে বেসরকারিভাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের (নৌকা) প্রার্থী আব্দুল ওদুদ। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল হক লিটনের (আপেল) চেয়ে তিন হাজার ৬৫৮ ভোট বেশি পেয়ে তিনি এমপি নির্বাচিত হয়েছে। আব্দুল ওদুদ পেয়েছেন ৫৯ হাজার ৬৩৮ ভোট আর স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল হক লিটন পেয়েছেন ৫৫ হাজার ৯৮০ ভোট। এ ছাড়া বিএনএফের প্রার্থী কামরুজ্জামান খাঁন (টেলিভিশন) পেয়েছেন চার হাজার ৪০ ভোট।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা এ কে এম গালিভ খান এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা এ কে এম গালিভ খান বলেন, এই আসনে ভোট পড়েছে ভোট পড়েছে এক লাখ ১৯ হাজার ৬৫৮টি। গড় ভোট ২৯ দশমিক ০৮ শতাংশ।

অপরদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে সর্বশেষ ফলাফল অনুযায়ী বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের জিয়াউর রহমান। তিনি পেয়েছেন ৯৪ হাজার ৯২৮ ভোট, তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্রপ্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার পেয়েছেন ২৫ হাজার ৩৯৯ ভোট।

প্রসঙ্গত, গত ১০ ডিসেম্বর রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে আয়োজিত সমাবেশ থেকে বিএনপির সাত সংসদ সদস্য পদত্যাগের ঘোষণা দেন। পরে তাঁরা স্পিকার ড. শিরীন শারমিনের কাছে পদত্যাপপত্র জমা দেন। ফলে আসনগুলো শূন্য ঘোষণা করে সংসদ সচিবালয়। তার ভিত্তিতে ছয় আসনে উপনির্বাচনের তফসিল দেয় ইসি। আজ বুধবার (১ ফেব্রুয়রি) ছয়টি আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here