তাহিরপুরে ফয়সাল বাহিনীর হামলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বাবুল

0
65

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় আবারও ফয়সাল বাহিনীর তান্ডবে এলাকাবাসীর মধ্যে আতংক ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফয়সালের ৬য় ভাই ও তাদের বাহিনীরা বালিজুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান বাবুল মিয়ার উপর প্রাননাশের উদ্দেশ্য দেশী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে পায়ের রগ কেটে দিয়েছে ও শরীলের বিভিন্ন স্থানে আগাতের কারনে শরীর থেকে অনবরত রক্ত ঝড়ছে। বর্তমানে তিনি মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার বিকেল ৫টায় উপজেলার বালিজুড়ি ইউনিয়নের আনোয়ারপুর বাজারের তালুকদার ফার্মেসীর সামনে ফয়সালের ৬য় ভাই ও তাদের বাহিনীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,উপজেলার বালিজুড়ী ইউনিয়নের ফাজিলপুর গ্রামের কাশেম, রহমগীর, সেলিমগীর, হোসেনগীর ও আনোয়ারপুর গ্রামের বুলবুল মেম্বারসহ ১০-১৫ সন্ত্রাসীরা পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী অতর্কিতভাবে বাবুল মিয়ার উপর ধারালো রামদা,ছুরিসহ দেশী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে বাবুল মিয়াকে এলোপাতারী কুপিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে ও তার ডান পায়ের রগ কেটে ফেলে দেয়। খবর পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী ও বাবুল মিয়ার স্বজনরা দূত পাশ্বভর্তি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরবর্তিতে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বাবুল মিয়া কে এস্বুলেন্সযোগে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

আনোয়ারপুর বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান,বাজারে মারামারি হলে আমাদের ব্যবসা বন্ধ। সারাক্ষণ আতংকে কাটাতে হয় কখন কি হয়। আর এই সংর্ঘষের কারনে বাজারে আসতে চায় না কেউ।

তাহিরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন,এ ঘটনায় খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে থানার পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এছাড়াও এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, গত ১৬ই মে আনোয়ারপুর বাজারে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফাজিলপুর গ্রামের ফয়সালসহ তার ৬য় ভাই ও তাদের বাহিনীর সাথে তাদের পতিপক্ষের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষ ফয়সাল বাহিনী বাজারে তান্ডব চালিয়ে দোকান ভাংচুর ও লোটপাট চালায়। এসময় এলাকাবাসীর মধ্যে আতংক ও উত্তেজনা বিরাজ করে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের মামলা হয় তাহিরপুর থানায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here