প্রমাণ হয়েছে গাজীপুরের মালিক জনগণ: জাহাঙ্গীর আলম

0
113

খবর৭১:;গাজীপুর সিটি করপোরেশনে নবনির্বাচিত মেয়র জায়েদা খাতুনের ছেলে ও তার মুখ্য নির্বাচন সমন্বয় কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘আপনাদের জয়লাভ হয়েছে, আর যারা অপরাধী তারা অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। সেই হিসেবে তাদের আর কিছু বলার নেই। কেউ আঘাত করলে তাকে আঘাত করতে হয় না। শহরের মালিক যে জনগণ এটা আপনাদের ভোটে বিজয়ের মাধ্যমে প্রমাণ হয়েছে।’

শুক্রবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর ছয়দানা এলাকার নিজ বাসভবনে তিনি এসব কথা বলেন।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আমাদের ওয়ার্ড, থানা (সিটি করপোরেশনের) এবং আমাদের মহল্লার সবাইকে নিয়ে একটা পঞ্চায়েত শাসনব্যবস্থা চালু করব৷ যেন আমাদের সিটি করপোরেশনের মানুষ কাজগুলো সহজে করতে পারে। সবার সহযোগী হয়ে থাকব আমি।’

এই শাসন ব্যবস্থার রূপরেখা কী হবে, সেটা অবশ্য উল্লেখ করেননি তিনি।

সম্প্রতি আওয়ামী লীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কৃত সাবেক এই মেয়র বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থেকে শুরু করে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলব- সবার পারিবারিক মর্যাদা আছে। সবাই যেন সবাইকে সহযোগিতা করে। এ শহরের মানুষ যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দেবেন।

জাহাঙ্গীর বলেন, ‘সাধারণ মানুষের যে শক্তি, সাধারণ মানুষের যে পাওয়ার, এটা বাংলাদেশের মধ্যে গাজীপুরে প্রথম শুরু হয়েছে৷ এই গাজীপুরেই প্রথম একজন ভোটারের যে দাম আছে, মূল্য আছে, ভোটার যে এই শহরের মানুষ, সেটা প্রমাণিত হয়েছে। কোনো পেশিশক্তির হুমকিতে এই শক্তির কিছু যায় আসে না। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনা করছেন, আমরা তাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করব।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘কাউকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা যাবে না। কারণ তারা শহরের মেয়র বানাতে পারেন। তারা সমাজের সবকিছুকে নিষিদ্ধ করতে পারেন। গুণ্ডা, মস্তান আর পেশিশক্তি দিয়ে প্রিয় মানুষের মন জয় করা যায় না।’

জাহাঙ্গীর আরও বলেন, ‘আমার মা মানে আপনাদের মা। আমার বাড়ি আপনাদের সবার জন্য উন্মুক্ত। যেকোনো সময়, যেকোনো প্রয়োজনে আপনারা আসবেন। আমার মা এবং আমি মিলে আপনাদের জন্য সার্বিকভাবে সহযোগিতা করব। সবার জন্য এ শহর। আমরা কারো সঙ্গে দ্বন্দ্ব চাই না। সবাইকে সঙ্গে নিয়েই কাজ করতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যেহেতু আছেন, উনার কাছ থেকে ন্যায়বিচার পাওয়া শুরু হয়েছে। অনেকে বিভিন্নভাবে পাঁয়তারা করেছিল; এ শহর শকুনের চাপায় পড়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনা করছেন। উনি আমাদের অভিভাবক, উনাকে সহযোগিতা করব।’

মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী সাতজনের সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নতুন মেয়র জায়েদা খাতুন কাজ করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন মুখ্য নির্বাচন সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলম।

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনি বিধিমালা অনুযায়ী আজ কোনো মিছিল-মিটিং হবে না। কাল-পরশু আনন্দ মিছিল হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here