মিরসরাইয়ে পূর্ব শত্রুতার জেরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ

0
44

রেদোয়ান হোসেন জনি, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :

মিরসরাইয়ে পূর্ব শত্রুতার জেরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (১৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার কাটাছড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বামন সুন্দর বাজারে অবস্থিত হাসনা মেটাল এন্ড ফার্নিচার মার্টে এই হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।
এই ঘটনায় দোকানের মালিক কাটাছড়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত শফিউল্ল্যাহর পুত্র মোঃ সেকান্তর (৪৫) বাদী হয়ে তিনজনকে অভিযুক্ত করে জোরারগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জেরে উপজেলার কাটাছড়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত ফিরোজ সওদাগরের পুত্র হারুনুর রশিদ (৪০) ও মাঈন উদ্দিন (৪২) এবং একই এলাকার মৃত খুরশিদ আলমের পুত্র এনামুল হক (৩৫) রবিবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে একত্রিত হয়ে বামন সুন্দর বাজারে অবস্থিত হাসনা মেটাল এন্ড ফার্নিচার মার্টের সামনে দাঁড়িয়ে দোকানের মালিক মোঃ সেকান্তরকে উদ্দেশ্য করে গালমন্দ করলে সে প্রতি উত্তর করলে তাহার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে দোকানের ভিতর প্রবেশ করে সামনের গ্লাস ও দোকানের পিছনে স্টাফ রুমের ভিতরে হামলা ও ভাংচুর চালায়। বাঁধা দিতে গেলে দোকানের মালিক সেকান্তরকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে এবং পকেটে থাকা নগদ ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় হামলার শিকার সেকান্তরের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে বেশি বাড়াবাড়ি করলে সেকান্তরকে হুমকি ধমকি প্রদান করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। স্থানীয়রা আহত সেকান্তরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মস্তান নগর ভর্তি করার পর সেখানে চিকিৎসা নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে বিষয়টি অবহিত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

হামলার শিকার সেকান্তর জানান, পূর্ব শত্রুতার জেরে হারুনুর রশিদ, মাঈন উদ্দিন ও এনামুল একত্রিত হয়ে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুর চালায় এবং আমার পকেটে থাকা নগদ ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এই হামলায় নগদ টাকা ছাড়া আমার দোকানের প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমি এবিষয়ে জোরারগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি এবং বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

কাটাছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মমতাজ করিম মিটুল জানান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা ও অভিযোগ দায়েরের বিষয়ে অবগত আছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে জোরারগঞ্জ থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোঃ এনামুল হক বলেন, বামনসুন্দরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা উল্লেখ করে দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং এবিষয়ে তদন্ত চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here