ঝিনাইদহে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্য বিবাহ

0
24

রাব্বুল ইসলাম, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হুদা বাকড়ি গ্রামে অষ্টম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। রোববার দুপুরে শিশু নিলয় ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম শাহীন । এসময় উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা, শিশু নিলয় ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, ফিল্ড ফেসিলেটেটর নাজনীন সুলতানাসহ অন্যান্যরা।
জানা যায়, সদর উপজেলার হুড়া বাকড়ি গ্রামের হাসমত শিকদারের মেয়ের সাথে শৈলকুপা উপজেলার সাপখোলা গ্রামের পিকুলের ছেলে সাগরের বাল্য বিবাহের আয়োজন করা হয়।

শিশু নিলয় ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, আমরা বাল্য বিবাহ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে কাজ করি। তারই ধারাবাহিকতায় উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের সহযোগিতায় একটি বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে। মেয়েটি বর্তমানে পানামি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। তার এসএসসি পরীক্ষা পাশ পর্যন্ত যাবতীয় লেখাপড়ার খরচ বহন করবে শিশু নিলয় ফাউন্ডেশন।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম শাহীন জানান, ১৮ বছরের আগে ওই ছাত্রীকে বিয়ে দেবে না মর্মে মুচলেকা দেন ভুক্তভোগি পরিবারটি। তিনি আরও জানান, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সদর উপজেলা প্রশাসন অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here