ভালো ঘুমে সাহায্য করে যেসব যোগব্যায়াম

0
35

খবর৭১ঃ সুস্থ থাকার জন্য পর্যাপ্ত ও ভালো ঘুম অত্যন্ত জরুরি। হতাশা, উত্তেজনা, খাদ্যাভ্যাস, জীবনযাপন প্রণালীর কারণে পর্যাপ্ত ঘুম পেতে অনেকের সমস্যা হয়। তবে এমন কিছু উপায় আছে, যার সাহায্যে ব্যক্তি চাপ এবং উত্তেজনা মুক্ত থাকতে পারে, যা তাদের ভালো ঘুম নিশ্চিত করতে সহায়তা করে।

মন ও শরীরকে চাপ মুক্ত করা, শরীরের প্রতি সচেতনতা গড়ে তোলা ইত্যাদি যোগাসনের মাধ্যমে লাভ করা যায়। যোগাসনে ধ্যান ও শ্বাস-প্রশ্বাসের নানান ভঙ্গি স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী। যোগাসনের ফলে আমাদের মনোযোগ তীব্র হয়, মন ভালো থাকে এবং শরীর স্বস্তি পায়। এ সব কারণই ভালো ও পর্যাপ্ত ঘুমে সাহায্য করে থাকে। পাশাপাশি আর্থ্রাইটিস ও হৃদয়ের সুস্থতায় যোগাসনের ভূমিকা রয়েছে। কয়েকটি যোগব্যায়াম ভালো ঘুম পেতে সাহায্য করে। সেগুলো হলো-

বালাসন

প্রথমে ম্যাটের ওপর নিজের গোড়ালিতে ভর দিয়ে বসুন। হাঁটু একসঙ্গে জুড়ে রাখতে পারেন অথবা একটু দূরত্বেও রাখা যায়। এবার শ্বাস ত্যাগ করে সামনের দিকে ঝুকে যান। কপাল দিয়ে মেঝে স্পর্শ করবেন। হাঁটু গেড়ে প্রণাম যে ভাবে করা হয়, সেই ভঙ্গিতে থাকবে হবে। হাত থাকবে পিছনের দিকে পায়ের পাতার ওপরে বা সোজা সামনের দিকে।

হাত পিছনের দিকে থাকলে তালু ওপরের দিকে মুখ করে রাখবেন। হাত সামনের দিকে লম্বা করে রাখলে তালু থাকবে ম্যাট স্পর্শ করে। হাঁটু দুটি জুড়ে রাখলে বুক দিয়ে জঙ্ঘার ওপর আস্তে আস্তে চাপ দিন। আবার দুই হাঁটুর মধ্যে দূরত্ব থাকলে, জঙ্ঘার মাঝে বুক দিয়ে চাপ দিতে হবে। কাঁধ, চোয়াল, কপাল ও চোখকে বিশ্রাম দিন। যতক্ষণ সম্ভব এ ভাবে থাকুন। এবার শ্বাস গ্রহণ করার সময় নাভি স্পাইনের দিকে তুলবেন। শ্বাস ছাড়ার সময় শরীর ও বাহু কোমল রাখতে হবে। কিছু ক্ষণ পর পর আগের অবস্থায় ফিরে আসুন।

উপকারিতা

১. এই যোগব্যায়মটি চাপ ও উত্তেজনা কম করতে সাহায্য করে।

২. সদ্য যোগাসন শুরু করে থাকলে, তাদের ক্ষেত্রে এই আসন উপকারী।

৩. এর ফলে বুক, পিঠ ও কাঁধ থেকে স্ট্রেস ঝেড়ে ফেলা যায়।

৪. ক্লান্তি দূর করতেও এই আসন সহায়ক।

৫. পিঠের ব্যথা কমে। কারণ এর ফলে পিঠ, নিতম্ব, জঙ্ঘা ও গোড়ালি সামান্য প্রসারিত হয়।

বৃক্ষাসন

বাঁ পায়ের ওপর ভর দিয়ে দাঁড়াতে হবে। এ সময় শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখুন। ডান পা অর্ধেক মুড়ে বাঁ পায়ের জঙ্ঘায় লাগিয়ে রাখুন। হাত সোজা করে মাথার ওপরে তুলতে হবে। এর পর অঞ্জলি মুদ্রায় হাত রাখুন। দৃষ্টি স্থির রাখুন এবং বাঁ পায়ে ওজন স্থানান্তরিত করুন। কিছুক্ষণ এভাবে দাঁড়িয়ে থাকুন। তার পর একই ভাবে অন্য পায়ে দাঁড়িয়ে এই আসনটি করুন।

উপকারিতা

১. মন ও মস্তিষ্কে ভারসাম্য পুনঃস্থাপন ঘটায় বৃক্ষাসন।

২. পা ও নিতম্বের হাড় মজবুত করে।

৩. পায়ের শক্তি বৃদ্ধি হয়।

৪. জঙ্ঘা, পায়ের কাফ পেশী এবং গোড়ালিও মজবুত করে এই আসন।

৫. একটি পায়ে শরীরের ভার স্থানান্তরিত করার ফলে পায়ের লিগামেন্ট ও টেন্ডন মজবুত হয়।

৬. মনোযোগ বৃদ্ধি পায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here