খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন চিলমারীর শতাধিক হরিজন সম্প্রদায়

0
18

চিলমারী (কুড়িগ্রাম ) প্রতিনিধি :
খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার শতাধিক হরিজন সম্প্রদায় ।
বর্তমানে চলমান করোনা পরিস্থিতিতে অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়েছে। কাজ না থাকায় খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে তাদেরকে।
সরেজমিনে চিলমারী উপজেলা ঘুরে তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়,
ফুলমতি (৬০) এর সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা অনেকদিন ধরে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছেন, লকডাউনে দোকান পাট বন্ধ থাকায় তাদের আয়ের পথ ও বন্ধ রয়েছে। এমতাবস্থায় কেউ এখন পর্যন্ত খবর নেয় নি।
বেবী রানী বলেন, এই সমাজে আমাদের তো কেউ মানুষ মনে করে না, আমরা যদি কোন কিছু খাইতে হোটেলে যাই তাহলে হোটেল মালিকরা আমাদের সাথে এমন ব্যবহার করে তা বলার মত না তারা আমাদের কুকুরের মতো করে বাইরে খাবার ফেলে দেয় সেখান থেকে তুলে নিয়ে আমাদের খাইতে হয়। আমরা কি মানুষ নই ।
গীতা রানী বলেন, আমরা ময়লা পরিস্কার করি, আবার সেই ময়লায় এসে আমাদের ঘুমাতে হয়। আমরাতো এ দেশের নাগরিক তাহলে আমরা কেন ভালো কোন জায়গায় থাকতে পারি না। সরকার তো সবাইকে ঘর দিচ্ছেন আমাদের তো দেয় না।
শান্ত জানান, আমরা কেউ অসুস্থ হলে আমাদের পাশে কেউ এসে দাড়ায় না । হাসপাতালে গেলে তারা অন্য হাসপাতালে যাওয়ার কথা বলে তাড়িয়ে দেয়। শুধু চিকিৎসা নয় আমাদের বাচ্চাদের স্কুলে ভর্তি করাতে গেলে সেখানেও আমাদের নানান কথা শুনতে হয়, আমাদের বাচ্চারা কি লেখাপড়ার সুযোগও পাবে না, তারা যদি লেখাপড়ার সুযোগ পাইতো তাহলে তারা আমাদের ময়লা পরিস্কার করত না,তারাও দেশের একজন অফিসার হইত।
শিমুল বলেন, সরকার ভুমিহীনদের জন্য ঘর দেয় জায়গা দেয় আমাদের জন্য তো কিছুই দেয় না, আমরা সরকারী খাসের জায়গায় কোনমতে পরিবার নিয়ে থাকি, আমাদের ঘর দেয়া তো দুরের কথা উল্টো সেই জায়গা থেকে উচ্ছেদ করে দেয়। আমরা সুইপার বলে কি কোন সুযোগ সুবিধা পাবো না। আমরা ১০ দিন না খেয়ে থাকলেও এলাকার মেম্বার চেয়ারম্যানরা কোন দিনো খবর নেয় না। এই দুঃখের কথা কাকে বলব আমরা। আমাদের কেউ নেই।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুবুর রহমান বলেন, হরিজন সপ্রদায়কে ত্রাণ দেয়া হয়েছে তারা যে ত্রাণ পাননি সেটি অভিযোগ মিথ্যাপরিবর্তিতে আরো তাদেরকে ত্রান দেয়া হবে জায়গার বিষয়ে তিনি বলেন যে সকরারী জায়গায় তারা থাকেন তাদেরকে ও খানে থাকতে দেয়া হবে যদি খাস জায়গা পাওয়া যায় তাদেরকে জায়গা দেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here