সুন্দরগঞ্জে বিপুল পরিমাণ চোলাই মদ উদ্ধার: ১ জনের কারাদন্ড

0
43

আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শান্তিরাম ইউনিয়নে অবস্থিত মজুমদারহাটে অভিযান চালিয়ে আশরাফুল হক (৪০) নামে এক মাদক কারবারীকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেছেন ভ্রম্যমান আদালত। এছাড়া, ঐ বাজারের বিভিন্ন স্থানে বসতবাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ চোলাই মদ উদ্ধার করা হয়েছে।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার দন্ডিত মাদক কারবারী আশরাফুল হককে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এরআগে রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আল-মারুফ ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালান। এতে মাদক সেবন করে মাতলামী করার অপরাধে আশরাফুল হককে ১৫ দিনের কারাদন্ডাদেশ দেন। দন্ডিত মাদককারবারী আশলাফুল হক উক্ত ইউনিয়নের খামার ধুবনী গ্রামের মৃত নুরুজ্জামান সরকারের ছেলে। এরপর কি বাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই হারুন অর-রশিদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বাজারের বিভিন্ন বসতবাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৩টি বাড়ি থেকে ৩৩ লিটার দেশীয় চোলাই মদ উদ্ধার করেন। এসময় বাড়ির মালিক হিরালাল, রবিদাশ, রুবেল মিয়া ও দীলিপ রবিদাস পালিয়ে যায়। এঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়। মামলার আসামীরা হলেন- শান্তিরাম ইউনিয়নের খামার ধুবনী গ্রামের সমারু রবিদাসের ছেলে হীরালাল রবিদাস, পাঁচগাছি শান্তিরাম গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে রুবেল মিয়া ও পলাশবাড়ি উপজেলার দীলিপ চন্দ্র রবিদাস। আসামী দীলিপ চন্দ্র রবিদাস খামার ধুবনী গ্রামের লালু রবিদাসের ভাগ্নি জামাই হিবেসে তাদের বাড়িতে থেকে মামা শ্বশুর ও মামী শ্বাশুড়ি মিলে দীর্ঘদিন ধরে চোলাই মদ প্রস্তুত, সংরক্ষণ, সেবন ও বাজারজাতকরণ করে আসছিল। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ইতোপূর্বেও কয়েকটি করে মামলা হয়েছে।
থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহিল জামান ৩৩ লিটার চোলাই মদ উদ্ধারের ঘটনায় ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা ও মাদক সেবনের দায়ে কারাদন্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামী আশরাফুল হককে আদালতে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here