সৈয়দপুরে বিভিন্ন মামলার আসামি কুখ্যাত মনোয়ার গ্রেফতার

0
267
সৈয়দপুরে বিভিন্ন মামলার আসামি কুখ্যাত মনোয়ার গ্রেফতার

খবর৭১ঃ

মিজানুর রহমান মিলন সৈয়দপুর প্রতিনিধিঃ সৈয়দপুরে ফেব্রুয়ারী মাসে থানায় দায়ের হওয়া মোটর সাইকেল চুরি সাথে জড়িত সন্দেহে বিভিন্ন থানায় দায়ের হওয়া একাধিক মামলার আসামি কুখ্যাত মনোয়ারকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে সৈয়দপুর থানা পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে শহরের কাজীপাড়া ঈদগাহ মাঠ এলাকায় সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করা অবস্থায় তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মোটরসাইকেল চুরির মামলায় জড়িত থাকতে পারে তদন্তকারীর তথ্যের ভিত্তিতে সন্ধিগ্ধ আসামি হিসেবে গ্রেফতার দেখিয়ে তাঁকে নীলফামারী জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার মনোয়ার সৈয়দপুর শহরের কুন্দল এলাকার মৃত আব্দুল গফুরের পুত্র। এদিকে বিভিন্ন মামলার আসামি মনোয়ার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ায় সাধারণ মানুষ স্বস্তির নিঃশ্বাষ নিয়েছে। থানা সুত্র জানায়, সৈয়দপুরের কুখ্যাত মনোয়ার জেল থেকে বেড়িয়ে এসে অপরাধমুলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছে এবং গত ১৩ ফেব্রুয়ারী থানায় দায়ের হওয়া মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় সে জড়িত রয়েছে পুলিশের কাছে এমন তথ্য আসে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সৈয়দপুর থানা পুলিশ কয়েকদিন থেকে তাঁকে গ্রেফতারে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায়।

কিন্তু চতুর মনোয়ার তাঁর অবস্থান বদল করায় পুলিশ তাঁকে ধরতে পারেনি। কিন্তু নাছোরবান্দা পুলিশ মনোয়ারের সন্ধানে একাধিক সোর্স নিয়োগ করে।  ফলে সেই সোর্সের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার রাতে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খানের নেতৃত্বে উপ-পরিদর্শক মো.সাহিদুর রহমান, ইন্দ্রোমোহন, নারায়ন চন্দ্র, মো. খালেদ ফিরোজ নয়ন, সহকারি উপ- পরিদর্শক নুর আমিন ও আমিনুর রহমানসহ সঙ্গীয় ফোর্স অভিযানে অংশ নেয়।

অভিযান চলাকালে শহরের কাজিপাড়া ঈদগাহ মাঠ এলাকা থেকে কুখ্যাত মনোয়ারকে আটক করা হয়। মোটর সাইকেল চুরি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার উপ-পরিদর্শক মো. খালেদ ফিরোজ নয়ন জানান, সে ওই চুরির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তাঁকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কথা হয় অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খানের সাথে। তিনি বলেন, মনোয়ার জেল থেকে বেড়িয়ে এসে বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে এমন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন তাঁকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে অপরাধ বিষয়ক বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে সে। তার দেয়া তথ্য যাচাই শেষে পরবর্তি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here