বৌদ্ধ পূর্ণিমায় ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে : আইজিপি

0
20

খবর ৭১ঃ বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বৌদ্ধ পূর্ণিমা উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্যে উদযাপনের লক্ষ্যে ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

তিনি বলেন, বৌদ্ধ পূর্ণিমার নিরাপত্তা নিয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো শঙ্কা নেই। নিরাপত্তা ব্যবস্থা সুসংহত করার লক্ষ্যে এ সংক্রান্ত প্রতিটি বিষয় বিশ্লেষণ করে বৌদ্ধ মন্দির কেন্দ্রীক বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে পুলিশ সদর দফতরের সম্মেলন কক্ষে বৌদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা সংক্রান্ত এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে এসব কথা বলেন তিনি।
জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বৌদ্ধ পূর্ণিমা নিয়ে কোনো গোষ্ঠী বা মহল যাতে গুজব বা বিভ্রান্তি ছড়াতে না পারে, সেজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসমূহ সার্বক্ষণিক মনিটর করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন এবং গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর জন্য সকল পুলিশ ইউনিটকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতিটি বৌদ্ধ মন্দির পরিদর্শনের জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সভায় জানানো হয়, বৌদ্ধ পূর্ণিমাকে সামনে রেখে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে চেকপোস্ট স্থাপন এবং ব্লক রেইডের ব্যবস্থা করার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কমিউনিটি পুুলিশিং সদস্য, স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী এবং বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতৃবৃন্দের সহায়তায় বৌদ্ধ মন্দিরসমূহে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইউনিটসমূহকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নিরাপত্তার স্বার্থে ব্যাগ, পার্স, ভ্যানিটি ব্যাগ ইত্যাদি সাথে না আনার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে পূণ্যার্থীদের। বৌদ্ধ মন্দিরসমূহে সিসিটিভি ক্যামেরা ও অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র স্থাপন এবং স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের জন্য বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতৃবৃন্দকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

আইজিপি আশা প্রকাশ করে বলেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রতিবারের মতো এবারও দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণভাবে বৌদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপিত হবে।

পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) সোহেল রানা জানান, সভায় উপস্থিত বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ বৌদ্ধ পূর্ণিমাকে কেন্দ্র করে গৃহীত সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। তারা পুলিশ প্রধানকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সভায় অতিরিক্ত আইজিপি (এএন্ডও) ড. মইনুর রহমান চৌধুরী, র্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, এটিইউ’র অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ আবুল কাশেম, স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত আইজিপি মীর শহীদুল ইসলাম, সংশ্লিষ্ট রেঞ্জের ডিআইজি, পুলিশ কমিশনার ও জেলার পুলিশ সুপারগণ, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি, ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহারের মহাসচিব পি আর বড়ুয়া, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের নির্বাহী সভাপতি অশোক বড়ুয়া, বৌদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি এবং সংরক্ষিত মহিলা আসন ৯ এর সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সহ-সভাপতি প্রমথ বড়ুয়া, বাংলাদেশ বৌদ্ধ সমিতি ঢাকা অঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক স্বপন বড়ুয়া চৌধুরী, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়, বাংলাদেশ বৌদ্ধ ধর্ম কল্যাণ ট্রাস্টের বোর্ড অবট্রাস্টি ডালিম কুমার বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, আগামী ১৮ মে দেশের প্রায় আড়াই হাজার বৌদ্ধ মন্দিরে বৌদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here