শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে সৈয়দপুরে আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

0
98

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :
রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে সৈয়দপুর উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠন। সোমবার রাতে শহরের দিনাজপুর সড়কস্থ সাবেক মদিনা হোটেল মোড়ে ওই সমাবেশ কর্মসুচি পালন করে দলটির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেওয়া রাজশাহী জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সাইদ চাঁদকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, তার বক্তব্যে প্রমাণ হয়েছে বিএনপি-জামাত হত্যার রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি। তারা বলেন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে পারবেনা জেনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সরিয়ে দেওয়ার নীলনকশা করছে। বক্তারা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আর ছাড় নয়,এবার রাজপথেই বিএনপি জামাতকে প্রতিহত করা হবে। তারা বলেন দেশকে অস্থিতিশীল করতে অগ্নিসন্ত্রাসের দল বিএনপি জামাত গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তাদের ওই ষড়যন্ত্র কোনদিন সফল হতে দিবেনা বাংলার জনগন। প্রতিবাদ সমাবেশে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ বলেন, আবু সাইদ চাঁদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত আওয়ামীলীগ রাজপথে থাকবে। বিএনপি জামাতের সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানানো হয় ওই সমাবেশে। সমাবেশে বক্তব্য বলেন, সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক মো. মহসিনুল হক মহসিন, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম বাবু, আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতা সৈয়দপুর সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক সাখাওয়াৎ হোসেন খোকন প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি প্রকৌশলী একেএম রাশেদুজ্জামান রাশেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক হিটলার চৌধুরী ভলু, পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজমল হোসেন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগমসহ আওয়ামীলীগ ও দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এরআগে শহরের একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সমাবেশ স্থলে জড়ো হয়।

মিছিলে আবু সাইদ চাঁদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি, শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করাসহ বিভিন্ন শ্লোগান দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here