বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের

0
115

খবর ৭১: বৈশ্বিক গণতন্ত্র সূচকে উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। লন্ডনভিত্তিক ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স (ইআইইউ) দ্বারা প্রকাশিত ডেমোক্রেসি ইনডেক্সের সর্বশেষ সংস্করণ অনুসারে এশিয়া ও অস্ট্রেলিয়া অঞ্চলে ৫.৯৯ স্কোর নিয়ে ৭৩তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। আগের সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৫তম। এই তালিকায় সর্বোচ্চ ৯.৮১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে নরওয়ে। প্রতিবেশি ভারতের অবস্থান ৪৬তম।

‘গণতন্ত্র সূচক ২০২২’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি বৃহস্পতিবার প্রকাশ করেছে ইআইইউ। সূচকটিতে বিশ্বের দেশ ও অঞ্চলগুলোকে পূর্ণ গণতন্ত্র, ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র, হাইব্রিড শাসনব্যবস্থা এবং কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থা; এই চারটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে। পূর্বের ন্যায় বাংলাদেশ এবারও হাইব্রিড শাসন ব্যবস্থা ক্যাটাগরিতে স্থান পেয়েছে। ৪ থেকে ৬ পয়েন্ট পাওয়া দেশগুলো এই ক্যাটাগরিতে রয়েছে এবং বাংলাদেশ এই তালিকার শীর্ষে। সাবার নিচে আছে মৌরিতানিয়া। এছাড়াও অন্যান্য দেশের মধ্যে রয়েছে ভুটান, ইউক্রেন, উগান্ডা, নেপাল ও পাকিস্তান। তাদের অবস্থান যথাক্রমে ৮৪তম, ৮৭তম, ৯৯তম, ১০১তম, ১০৭তম।

এবারের সূচকে পূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে রয়েছে ২৪টি দেশ। এ ছাড়া ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে ৪৮, হাইব্রিড শাসনব্যবস্থায় ৩৬ এবং কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থায় ৫৯টি দেশ রয়েছে।

হাইব্রিড শাসনব্যবস্থা বলতে প্রায়ই অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত হয় এমন দেশগুলোকে বুঝায় যেখানে শাসনব্যবস্থায় বিরোধী দল ও বিরোধী প্রার্থীদের ওপর সরকারের নিয়মিত চাপের মধ্যে থাকে। ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্সের মতে এই বিভাগের দেশগুলোর বিচারব্যবস্থা স্বাধীন নয়। সাংবাদিক হয়রানি এবং দুর্নীতির ব্যাপক বিস্তার, দুর্বল আইনের শাসন ও দুর্বল নাগরিক সমাজও এর বৈশিষ্ট্য।

প্রতিবেদনে আরও প্রকাশ করা হয়েছে যে বিশ্বব্যাপী গণতন্ত্রের দীর্ঘ পতন ২০২২ সালে কিছুটা থমকে গেছে। ভারতকে ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র দেশের তালিকায় স্থান দিয়েছে ইআইইউ। পশ্চিম ইউরোপের উন্নত দেশগুলি বিশ্বের ‘পূর্ণ গণতন্ত্র’ গুলোর মধ্যে আধিপত্য বিস্তার করেছে। ২৪টির মধ্যে পশ্চিম ইউরোপেরই রয়েছে ১৪ দেশ।

কানাডা হল উত্তর আমেরিকার একমাত্র ‘পূর্ণ গণতন্ত্র’ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি ‘ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র’ হিসেবে স্থান পেয়েছে। এশিয়া এবং অস্ট্রেলিয়ায় পাঁচটি দেশে ‘পূর্ণ গণতন্ত্র’ রয়েছে, যার মধ্যে এশিয়ার তিন দেশ জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া এবং তাইওয়ান আর অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড।

লাতিন আমেরিকান তিন দেশকেও ‘পূর্ণ গণতন্ত্র’ হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চিলি, কোস্টারিকা এবং উরুগুয়ে। আফ্রিকান দেশ হিসেবে স্থান পেয়েছে মরিশাস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here