বাগমারায় ইউপি নির্বাচনে নৌকার হাল ধরতে চান ইন্জিঃ আলমগীর হোসেন

0
197

বাগমারা (রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড়বিহানলী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইন্জিঃ আলমগীর হোসেন এবারে ইউপি নির্বাচনে বড়বিহানলী ইউনিয়নের নৌকার হাল ধরতে চান। তিনি আওয়ামীলীগ পরিবারের একজন সদস্য তার আপন চাচা মরহুম কফিল উদ্দীন বড়বিহানলি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন। নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ইন্জিঃ আলমগীর হোসেন ছোট বেলা থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি ছাত্রজীবন থাকাকালীন রুয়েট ছাত্রলীগের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি অত্যন্ত মেধাবী, নম্র, ভদ্র,বিনয়ী,এবং বঙ্গবন্ধুর আর্দশে বিশ্বাসী পর উপকারী মানুষ। বর্তমান সময়ে ও ব্যাপকভাবে মানুষের পাশে থেকে নিজ তহবিল থেকে সেবামূলক কাজ করে যাচ্ছেন । তাহার কিছু নমুনা ইতি মধ্যে পেয়েছে যাহা বাস্তবে প্রতিফলিত এবং এলাকা বাসীর মুখে মুখে।
বড় বিহানলী তথা আশে পাশের সব মসজিদ,মাদ্রাসা,ঈদগাহ ময়দান এবং স্থানীয় ছোট রাস্তার উন্নয়ন কাজের জন্য একাধিকবার সহযোগিতা করেছেন এবং আজ ও করে যাচ্ছেন। তিনি নিজ উদ্দ্যগে তিন তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট ১৮.৫ লাখ টাকা ব্যয়ে করে আধুনিক মসজিদ নির্মাণ করেন তার নিজ গ্রামে। যাহার ৯৫ ভাগ ব্যয় নিজে বহন করেন। বেকার ছেলেদের চাকরি দিয়েছেন।বাগান্না উচ্চ বিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজের জন্য এককালীন দুই লক্ষ টাকা দান করেন এবং তাহার প্রচেষ্টায় মাননীয় এমপি মহোদয়ের ইচ্ছায় আজ সরকারি ভবন নির্মিত হচ্ছে যাহা এলাকার শিক্ষা বিস্তারে ব্যাপক ভুমিকা রাখবে এবং ভবিষ্যতে এলাকার শিশুরা শিক্ষিত জাতি হিসেবে গড়ে উঠবে। এলাকার অনেক বিধবা,এতিম,অসুস্থ মানুষের পাশে সর্বদা থাকছেন এবং তাদেরকে বিভিন্ন সময় আর্থিক সাহায্য করে আসছেন।বিগত ২০০৮ সাল থেকে প্রতি রোযার ঈদের সময় গরীব দুঃখী অসহায় মানুষের ঈদকে আনন্দময় করতে নিজ তহবিল হতে উপহার হিসেবে শাড়ী বিতরণ করে আসছেন। নিজ উদ্দোগে এলাকার গরীব মানুষের সেবার লক্ষ্য চক্ষু শিবিরের আয়োজন করেন এবং ১২০ জন মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়া হয়। গতবারের বন্যা দুর্গত ৩৫০ জন মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন এবং নিজ ঘরে দুর্গত মানুষকে আশ্রয় দেন যাহা প্রথম আলো পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।বিহানালী আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌছানোর ব্যবস্থা করেন।তাই বড়বিহানলি ইউনিয়নের নৌকার মনোনয়ন প্রতাশী ইন্জিঃ আলমগীর হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি এ প্রতিবেদকে জানান, আমি এলাকার উন্নয়নের জন্য ব্যাপক কাজ করেছি এবং করব যা ইতিমধ্যে এলাকায় প্রতিফলিত। পাশাপাশি তিনি আরো বলেন, আমি যদি নৌকার টিকিট পায় আর এলাকার জনসাধারণ আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে তাহলে এ ইউনিয়ন কে মডেল ইউনিয়নে রুপান্তর করব ইনশাআল্লাহ। এ ব্যাপারে স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা হলে তারা জানান, অদূর ভবিষ্যতে তাহার কাছ থেকে এলাকার জনগণ আরও সেবামুলক কাজ পেয়ে থাকবেন। মহান আল্লাহ পাক যেন উনাকে তৌফিক দান করেন।সেই সাথে এমন যোগ্য,সৎ,সুশিক্ষিত এবং উদার মানবিক গুন সম্পন্ন ব্যক্তিকে দল তথা এলাকার জনগণ সাদরে গ্রহণ করবেন। তাই বড়বিহানলি ইউনিয়নবাসীর দাবি আধুনিক প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত এ ব্যক্তিকে নৌকার মনোনয়ন দিয়ে মনোনীত করে আগামীতে নতুনরুপে বড় বিহানালী গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ ইন্জিঃ এনামুল হকের হাতকে শক্তিশালী করতে তার কোন বিক্ল্প নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here