সৈয়দপুরে স্কুল ছাত্র রিফাতের চিকিৎসায় আর্থিক সাহায্যের প্রয়োজন

0
42

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর :
নীলফামারীর সৈয়দপুরের প্রত্যন্ত পল্লীর হতদরিদ্র এক পরিবারের মেধাবী শিক্ষার্থী রিফাত হোসেন (১৪) প্যারাপ্লিজিয়া রোগে আক্রান্ত। তাঁর সুচিকিৎসায় আর্থিক সাহায্যের প্রয়োজন। তাই তাঁকে উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করতে পরিবারের পক্ষ থেকে সাহায্যের আবেদন জানানো হয়েছে। সকলের আর্থিক সহযোগিতায় আবারও সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে মেধাবী শিক্ষার্থী রিফাত হোসেন।
সে সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের মুশরত ধুলিয়াপাড়ার (চৌধুরীপাড়া) রিকশাচালক মো. ছাদেকুল ইসলাম ও মেরিনা বেগম দম্পতির ছেলে। রিফাত হাজারীহাট স্কুল এন্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। গত প্রায় আট মাস ধরে সে অসুস্থ। চিকিৎসকের পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তাঁর প্যারাপ্লিজিয়া রোগ ধরা পড়েছে। এতে তার কোমর থেকে দুইটি পায়েই অচল হয়ে পড়ে। সে সম্পূর্ণরূপে হারিয়ে ফেলেছে চলাচলের শক্তি। ফলে সে আর পায়ে হাঁটাচলা করতে পারে না। ইতোমধ্যে তাঁর চিকিৎসায় হতদরিদ্র পরিবারটি সহায় সম্পদ বিক্রি করে কয়েক লাখ টাকা ব্যয় করেছে। কিন্তু তাতেও সে সুস্থ হয়ে উঠেনি অদ্যাবধি। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানিয়েছেন উন্নত চিকিৎসা পেলে রিফাত হোসেন আবার আগের মতো সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে। কিন্তু উন্নত চিকিৎসার আর্থিক সামর্থ্য নেই তাঁর পরিবারের। আর্থিক সংকটের কারণে তার বর্তমানে চিকিৎসাও চালিয়ে যাওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই বর্তমানে অর্থাভাবে অনেকটাই বিনা চিকিৎসায় বাড়ির বিছানায় শুয়ে শুয়ে দিন কাটছে তাঁর। এতে করে দিন দিন সে আরো বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ছে। আর চোখের সামনে অসুস্থ ছেলের এ করুণ পরিণতিতে বাবা-মা অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছেন। অসুস্থ ছেলের চিকিৎসা করতে না পেরে তাঁর বাবা- মা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন। কারণ তাদের এখন আর কোন সহায় সম্পদ নেই যে অসুস্থ ছেলের চিকিৎসা করাবেন। ছেলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে সর্বশান্ত হয়ে পড়েছে পরিবারটি ইতোমধ্যে।
এমতাবস্থায় মেধাবী শিক্ষার্থী রিফাতের উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁর পরিবারের পক্ষে থেকে সমাজের সহৃদয়বান বিত্তশালী ও সম্পদশালীদের কাছে আর্থিক সাহায্যের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : সঞ্চয়ী ব্যাংক হিসাব নং -৫৩১০০০২৯০৬২৩৮, সোনালী ব্যাংক লিঃ, সৈয়দপুর শাখা, নীলফামারী। বিকাশ নম্বর: ০১৯৯১-৫৮৬৮৪১ (ব্যক্তিগত)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here