বাগেরহাটে ৬৬টি ইউপির ৬৪টিতে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত

0
39

বাগেরহাট প্রতিনিধি: প্রথম ধাপে বাগেরহাট জেলার ৭৫টি ইউপির মধ্যে ৬৬টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন হলো। যার মধ্যে ৬৪টিতেই আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। যার মধ্যে বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন ৩৮ জন । একমাত্র কচুয়া উপজেলার রাড়িপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মেম্বার পদের ১৩ জন প্রার্থীই বিনা ভোটে নির্বাচিত হন। ২০ সেপ্টম্বর ৬৫টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ২৮ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্দিতা করে ২৬টিতে আওয়মীলীগ দলীয় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়। এছাড়া সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন যুবলীগের দুই নেতা ।
২৮টি ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দিতা করে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদের মধ্যে মোরেলগঞ্জে ১৪জন , রামপালে ৪জন, কচুয়ায় ২জন , চিতলমারী ৩ জন, ফকিরহাটে ৩জন, বাগেরহাট সদরে এক জন এবং শরণখোলায় এক জন চেয়ারম্যান । মোরেলগঞ্জে ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১২টিতে নৌকা এবং দুইটিতে সতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, প করনে রাজ্জাক মজুমদার, দৈবজ্ঞহাটি সামছু মল্লিক, বনগ্রামে রিপন দাস, বলইবুনিয়ায় শাহজাহান আলী, হোগলাবুনিয়ায় মো. আকরামুজ্জামান, বহরবুনিয়ায় রিপন তালুকদার, মোরেলগঞ্জ সদরে হুমায়ুন কবির মোল্লা, তেলিগাতী ইউনিয়নে মোরশেদা আক্তার, পুটিখালীতে আব্দুর রাজ্জাক, রামচন্দ্রপুর আব্দুল আলিম, জিউধরায় জাহাঙ্গীর আলম বাদশা এবং চিংড়াখালী ইউনিয়নে আলী আক্কাচ বুলু। এছাড়া আওয়ামীলীগের প্রার্থীকে হারিয়ে সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন হোগলাপাশা ইউনিয়ন থেকে যুবলীগ নেতা মো, ফরিদুল ইসলাম এবং বারইখালী ইউনিয়ন থেকে আব্দুল আউয়াল খান মহারাজ।
কচুয়া উপজেলার দুই ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, ধোপাখালিতে শেখ মকবুল হোসেন এবং মঘিয়ায় পঙ্কজ কান্তি অধিকারি।
রামপালের চারটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, বাইনতলায় ফকির আব্দুল্লাহ, উজুলকুরে মুন্সি বোরহান উদ্দিন, গৌরম্ভায় মোঃ.রাজিব সরদার এবং পেড়িখালি ইউনিয়নে রফিকুল ইসলাম বাবুল।
চিতলমারী উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, বড়বাড়িয়ায় মোহাম্মাদ মাসুদ সরদার, সদর ইউনিয়নে মো.নিজাম উদ্দিন শেখ এবং কলাতলায় মো. বাদশা মিয়া।
ফকিরহাটে তিনটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, লখপুরে এমডি সেলিম রেজা, বাহিরদিয়ায় রেজাউল করিম ফকির এবং শুভদিয়ায় মো. ফারুকুল ইসলাম।
শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মাইনুল ইসলাম টিপু বিজয়ী হয়েছেন। এবং বাগেরহাট সদরের রাখালগাছি ইউনিয়ন থেকে শেখ আবু শামীম আসনু নৌকা প্রতিক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
এর আগে নৌকা প্রতিকের ৩৮জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দীতায় নির্বাচিত হন। যাদের মধ্যে বাগেরহাট সদরের ৬ জন, মোল্লাহাটে ৬ জন ফকিরহাটে ৪ জন, রামপালে ৃ ৫ জন, মোংলায় ৬ জন, চিতলমারীতে ৪ জন , কচুয়ার ৪ জন এবং শরণখোলায় ৩ জন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here