রোগের দাওয়াই ইলিশ মাছ

0
24

খবর৭১ঃ বাঙালির সংস্কৃতির সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছ ইলিশ মাছ। মাছের রাজা বলা হয় ইলিশ মাছকে। কারণ এটি স্বাদে যেমন অতুলনীয়, তেমনি পুষ্টিতে ভরপুর। ভোজনরসিক বাঙালির পাতে বর্ষায় ইলিশ থাকবেই। সরিষা ইলিশ, ভাপা, ইলিশ পাতুরি, দই ইলিশ, ইলিশের টক, ভাজা, ইলিশের ডিম আর কত কী বাঙালির পাতে থাকবেই। ইলিশ শুধু স্বাদেই নয় পুষ্টিতেও সমৃদ্ধ। অনেকেই জানেন না ইলিশ খেলে হার্ট সুস্থ থাকে। ইলিশে রয়েছে আরও গুণাগুণ।

প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরি রয়েছে ইলিশ মাছে। এছাড়া পটাশিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, সোডিয়াম, জিংক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন এ, ভিটামিন ডি পাওয়া যায় এই মাছ থেকে। রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় সবটুকু ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আমরা এই মাছটি থেকেই পেতে পারি। ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যসিড আলসার, কোলাইটিসের হাত থেকে রক্ষা করে। ব্রেন- মস্তিষ্কের ৬০% তৈরি ফ্যাট দিয়ে, যার অধিকাংশই ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। যারা নিয়মিত মাছ খান তাদের মধ্যে বয়স কালে ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা অনেক কম দেখা যায়। শিশুদের মস্তিষ্কের গঠনেও সাহায্য করে ডিএইচএ। স্মৃতিশক্তি, পড়াশোনায় মনযোগ বাড়ায় ইলিশ মাছ ।

ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড অবসাদের মোকাবিলা করতে পারে, ডিপ্রেশন কাটাতে পারে ইলিশ মাছ, এমনটাই বলছে বিশেষজ্ঞরা, এছাড়াও ত্বককে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করে ওমেগা থ্রি নিয়মিত মাছ খেলে একজিমা, সোরেসিসের মত রোগের হাত থেকে রক্ষা পায় ত্বক। ইলিশ মাছে থাকা প্রোটিন কোলাজন ত্বক টাইট ও নমনীয় রাখতে সাহায্য করে।

গবেষণায় প্রমাণিত, সামুদ্রের মাছ ফুসফুসের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে কার্যকরী। শিশুদের ক্ষেত্রে হাঁপানি রোধ করতে পারে ইলিশ মাছ। যারা নিয়মিত মাছ খান তাঁদের ফুসফুস অনেক বেশি শক্তিশালী।

তেলযুক্ত ইলিশ মাছ খেলে চোখের স্বাস্থ্য ভাল থাকে, চোখ উজ্জ্বল হয়। বয়সকালে দৃষ্টিশক্তি বজায় রাখতে পারে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। ইলিশ মাছের মধ্যে থাকা ভিটামিন এ রাতকানার মোকাবিলা করতেও সাহায্য করে। ইলিশ মাছে আয়ডিন, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক, পটাশিয়াম থাকায় থায়রয়েড গ্ল্যান্ড সুস্থ রাখে।

ইলিশ মাছে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিমাণ একেবারেই কম, অন্যদিকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকায় রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কম ফলে হার্ট থাকে সুস্থ। ইলিশ মাছ খেলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন ভাল হয়। থ্রম্বসিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে। প্রতিদিন ইলিশ খেতে চাইলে হালকা ইলিশের ঝোল খান৷ খুব কড়া করে ভাজা ইলিশ মাছ না খাওয়াই ভালো ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here