বিরামপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে বিদায়ী সম্বর্ধনা 

0
46
বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বিরামপুর প্রেসক্লাবের আয়োজনে পদোন্নতি ও বদলী জনিত কারণে বিরামপুর থানার সহকারী পুলিশ সুপার মিথুন কুমার সরকার ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান এই দুই পুলিশ কর্মকর্তাদ্বয়কে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।
(২৮মে) বৃহস্পতিবার রাত ৮টার বিরামপুর প্রেসক্লাব (ঢাকামোড়) অস্থায়ী কার্যালয়ে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
উক্ত বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মশিহুর রহমানের এর সঞ্চলনায় বিরামপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহিনুর আলম এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন-সহকারী পুলিশ সুপার মিথুন কুমার সরকার ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান,প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আকরাম হোসেন,সিনিয়র সহ-সভাপতি ডাঃ নুরুল হক,সহ-সভাপতি এসএম মাসুদ রানা,সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক মানিক,কার্যনির্বাহী সদস্য ডাঃ নুরুল ইসলাম, সাংবাদিক ফরিদ হোসেন,পবল কুমার শীল প্রমুখ।
এসময় প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সা.সম্পাদক ও উপস্থিত সকল সদস্যসহ ফুল দিয়ে বিদায়ী সংবর্ধনা দেন। অনুষ্ঠানে বিরামপুর প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্যসহ স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় পদোন্নতি পাওয়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিথুন কুমার সরকার বলেন-আমি পদোন্নতি পেয়েছি। রাজশাহীর সারদা পুলিশ একাডেমীতে আমার পরবর্তী কর্মস্থল। তিনি আরো বলেন-বিরামপুরের মানুষ অন্তত শান্তি প্রিয় মানুষ। এখানকার মানুষ অনেক ভালো সহজ সরল, সাদা মনের মানুষ। এখানে এসে অনেক কিছু পেয়েছি এবং শিখেছি। আমি আমার সাধ্য মত সকলের সেবাসহ বিরামপুরে জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি। জানি না কতটুকু করতে পেরেছি। তবে আমি বিরামপুর ও বিরামপুরের মানুকে অনেক মিস করবো।
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন-আমার দিনাজপুর কোর্ট বদলী হয়েছেন। আমি ওসি হয়ে বিরামপুরে আসার পর থেকে আমার সাধ্য মত যতটুকুই পারছি সেবা ও সহযোগিতা দেওয়ার চেষ্টা করছি। জানি না কতটুকু পেরেছি করতে। তবে আমি আমার সাধ্য মত চেষ্টা করেছি। আমি একটা কথা বলতে পারি যে আমার কাছে থেকে কেউ কোনদিন এসে কোন সহযোগীতা বা কোন আইনই পরামর্শ না নিয়ে ফেরত গেছে। বিরামপুরের মানুষ অনেক ভালো। আমি সব সময় কাজেকর্মে সাংবাদিক ভাইদের সহযোগিতা পেয়েছি। আমি আপনাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here