ডিএসইর সূচক ৮ বছরের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ

0
30
দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক সর্বোচ্চ উত্থান হয়েছে। আজ রবিবার সূচকটির একদিনে ২১৬ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৬১৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। যা সূচকটির গত ২১ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থান। রবিবার সূচকটির অবস্থান শুধু সর্বোচ্চই নয়। একদিনের ব্যবধানে সূচকটির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থানও হয়েছে। যা সূচকটি চালু হওয়ার ৮ বছরের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থান। এর আগে ২০২০ সালের ১৯ জানুয়ারি সূচকটি একদিনের ব্যবধানে সর্বোচ্চ ২৩২ পয়েন্ট বেড়েছিল। ডিএসই ও সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। প্রসঙ্গত, ডিএসইতে ডিএসইএক্স সূচকটি ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি ৪০৫৬ পয়েন্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করে। এরপরে বিগত ৮ বছরের মধ্যে সূচকটির আজ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থান হয়েছে। ডিএসইতে আজ টাকার পরিমাণে লেনদেনও বেড়েছে বড় ব্যবধানে। রবিবার ডিএসইতে এক হাজার ৯২৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা গত ৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন ডিএসইতে। এর আগে গত ২৮ জুন ডিএসইতে গ্লাক্সোস্মিথক্লাইনের মালিকানা বদলকে কেন্দ্র করে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৫৪৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। আজ ডিএসইতে আগের দিন থেকে ৩৮২ কোটি ৪৯ লাখ টাকা বেশি লেনদেন হয়েছে। গত বছরের শেষ কর্মদিবস বুধবার লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৫৪৩ কোটি ২৭ লাখ টাকার। এদিন ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইর ২১৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৬১৮ পয়েন্টে। যা গত ২১ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ স্থান। এর আগে ২০১৯ সালের ৩ মার্চ সূচকটির অবস্থান ছিল ৫ হাজার ৬৩১ পয়েন্ট। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই৩০ সূচক ১১৪ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৫৭ পয়েন্ট বেড়েছে। রবিবার ডিএসইতে মোট ৩৬১টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২৫৩টির, দাম কমেছে ৫৮টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০টি কোম্পানির। দেশের অপর পুঁজি বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৬৭২.২৫ পয়েন্ট। সূচকটি ১৬ হাজার ২৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৭ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার। সিএসইতে মোট ২৮৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৮টির, দাম কমেছে ৪২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির।

খবর৭১ঃ দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক সর্বোচ্চ উত্থান হয়েছে। আজ রবিবার সূচকটির একদিনে ২১৬ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৬১৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। যা সূচকটির গত ২১ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থান।

রবিবার সূচকটির অবস্থান শুধু সর্বোচ্চই নয়। একদিনের ব্যবধানে সূচকটির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থানও হয়েছে। যা সূচকটি চালু হওয়ার ৮ বছরের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থান। এর আগে ২০২০ সালের ১৯ জানুয়ারি সূচকটি একদিনের ব্যবধানে সর্বোচ্চ ২৩২ পয়েন্ট বেড়েছিল। ডিএসই ও সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ডিএসইতে ডিএসইএক্স সূচকটি ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি ৪০৫৬ পয়েন্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করে। এরপরে বিগত ৮ বছরের মধ্যে সূচকটির আজ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উত্থান হয়েছে।

ডিএসইতে আজ টাকার পরিমাণে লেনদেনও বেড়েছে বড় ব্যবধানে। রবিবার ডিএসইতে এক হাজার ৯২৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা গত ৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন ডিএসইতে। এর আগে গত ২৮ জুন ডিএসইতে গ্লাক্সোস্মিথক্লাইনের মালিকানা বদলকে কেন্দ্র করে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৫৪৩ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

আজ ডিএসইতে আগের দিন থেকে ৩৮২ কোটি ৪৯ লাখ টাকা বেশি লেনদেন হয়েছে। গত বছরের শেষ কর্মদিবস বুধবার লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৫৪৩ কোটি ২৭ লাখ টাকার।

এদিন ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইর ২১৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৬১৮ পয়েন্টে। যা গত ২১ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ স্থান। এর আগে ২০১৯ সালের ৩ মার্চ সূচকটির অবস্থান ছিল ৫ হাজার ৬৩১ পয়েন্ট।

অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই৩০ সূচক ১১৪ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৫৭ পয়েন্ট বেড়েছে।

রবিবার ডিএসইতে মোট ৩৬১টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২৫৩টির, দাম কমেছে ৫৮টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০টি কোম্পানির।

দেশের অপর পুঁজি বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৬৭২.২৫ পয়েন্ট। সূচকটি ১৬ হাজার ২৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৭ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার।

সিএসইতে মোট ২৮৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৮টির, দাম কমেছে ৪২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here