সৈয়দপুরে ওপেন হাউস ডে’র অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার

0
201
সৈয়দপুরে ওপেন হাউস ডে'র অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার

মিজানুর রহমান মিলন সৈয়দপুর প্রতিনিধিঃ নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান (বিপিএম -পিপিএম) বলেছেন মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের অবস্থান জিরো টলারেন্সে। মাদক নির্মুল করতে না পারলে পরিবার, সমাজ ও দেশ হুমকির মুখে পড়বে। মাদকই হচ্ছে সকল অপরাধের উৎস। তাই নীলফামারী জেলা থেকে মাদক নির্মুলে পুলিশ সার্বক্ষনিক কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেছেন মাদক নির্মুলে পুলিশ যদি কাজ না করে এবং কোন পুলিশ সদস্য যদি মাদকের সাথে সংশ্লিষ্ট থাকে তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এক্ষেত্রে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। গতকাল সোমবার সৈয়দপুর থানা পুলিশ আয়োজিত ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি ওইসব কথা বলেন।”মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার-পুলিশ হবে জনতার” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে দুপুরে থানা চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত খান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল। অনুষ্ঠানে মাদক, বাল্যবিয়ে, চুরিসহ অাইনশৃঙ্খলা বিষয়ে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম বাবু, সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি সাকির হোসেন বাদল, খাতামধুপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জুয়েল চৌধুরী, পৌর কাউন্সিলর এরশাদ হোসেন পাপ্পু,আব্দুল খালেক সাবু, বাঙ্গালীপুর ইউপি সদস্য লুৎফর রহমান খান, বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ডা. মো. শাহাজাদা সরকার, বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মো. মমতাজ আলী, পৌর আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শেখ মাসুম, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক মহসিন মন্ডল মিঠু,উপজেলা তাঁতীলীগের সাধারন সম্পাদক মোস্তফা কামাল, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. আব্দুস সবুর আলম, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সাদেকুজ্জামান মানিক, জাতীয়পার্টি নেতা মো. ফেরাজ উদ্দিন, নীলফামারী জেলা যুবসংহতির সভাপতি মে. রওশন মহানামা প্রমুখ। আলোচনায় বক্তারা সৈয়দপুরে মাদক, জুয়া, বাল্যবিয়ে চুরিসহ আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে ওপেন হাউস ডে অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমানের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। প্রধান অতিথি নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান তাঁর বক্তব্যে প্রথমেই পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, সৈয়দপুরসহ গোটা জেলায় মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরো টলারেন্সে রয়েছে।

তিনি মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশকে জোরালো অভিযান চালানোর নির্দেশ দিয়ে বলেন মাদক নির্মুল করতে না পারলে সমাজ থেকে অপরাধ কমানো যাবেনা। তাই মাদক নির্মুলে পুলিশ যদি ব্যবস্থা না নেয় এবং মাদকের সাথে যদি কোন পুলিশ সদস্যের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় তাহলে সেই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। বাল্যবিয়ে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটি হচ্ছে সামাজিক ব্যাধি। কোন নিকাহ রেজিস্টার যদি বাল্যবিয়ে করায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এতে কোন জনপ্রতিনিধি বা সমাজের সচেতন ব্যক্তিরাও যদি অংশ নেয় তাহলে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে। পুলিশ সুপার চুরিসহ অন্যান্য অপরাধ নিয়ন্ত্রনে পুলিশ সদস্যদের আরও তৎপর হওয়ার আহবান জানিয়ে বেপরোয়াভাবে চালানো মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ট্রাফিক বিভাগ ও থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন। পুলিশ জনগনের কল্যাণে সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সৈয়দপুরের জনসংখ্যা হিসেবে পুলিশের জনবল অনেক কম। তাই সৈয়দপুরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং সমাজে অপরাধ কমাতে পুলিশকে সার্বিক সহযোগিতা করার, জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

সৈয়দপুর সদর ফাড়ির পরিদর্শক মো. আব্দুর রহিম অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। ওপেন হাউস ডে ‘র অনুষ্ঠানে, সৈয়দপুরের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ ব্যবসায়ী সংগঠন, সামজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও গনমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here