বেনাপোলে ৯.২ কেজি ওজনের ৫৭ টি স্বর্ণের বারসহ বানেছা আটক

0
121
বেনাপোলে ৯.২ কেজি ওজনের ৫৭ টি স্বর্ণের বারসহ বানেছা আটক

শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল : বেনাপোলের সাদিপুর সীমান্ত থেকে ৯.২ কেজি ওজনের ৫৭ টি স্বর্ণের বারসহ বানেছা খাতুন(৪৫) নামে এক স্বর্ণ পাঁচারকারীকে আটক করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যরা। তবে, এসময় চোরাকারবারীর হোতাদের আটক করতে পারেননি। আটককৃত বানেছা বেনাপোল পোর্ট থানার সাদীপুর গ্রামের দুখু মিয়ার স্ত্রী।

এ বিষয়ে বেনাপোল সীমান্তবাসী জানান, দীর্ঘদিন যাবত এ সীমান্তের কিছু মাদক, হুন্ডি ও স্বর্ণচোরাকারবারি দেদারছে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের সকল ধরণের অপব্যবসা। যাদের মাঝে মধ্যে কয়েকটি চালান আটক হলেও মূল হোতারা থেকে যায় ধরাছোয়ার বাইরে। এছাড়া, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় রাতারাতি তারা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছে। আর এ ধরণের অপব্যবসার সাথে সীমান্তের কারা জড়িত তা সীমান্তের সর্বসাধারণের জানার মধ্যে থাকলেও আইন প্রয়োগকারি কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়না তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল সেলিম রেজা জানান দীর্ঘদিন যাবত হুন্ডি, মাদক, চেরাচালান ও স্বর্ণ আটকের নিমিত্তে বিজিবি’র বিশেষ পরিকল্পনা অনুযায়ী গোয়েন্দা তৎপরতাসহ অভিযান জোরদার করা হয়েছে। যার ফলশ্রæতিতে গত ২৮ আগস্ট ২০২০ তারিখ ১৯১০ ঘটিকায় বেনাপোল বিওপি’তে কর্মরত নায়েক মোঃ নুরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ চোরাচালান বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযানে বেনাপোল পোর্ট থানাধীন সাদিপুর প্রাইমারী স্কুলের সামনে পাঁকা রাস্তার উপর হতে বাংলাদেশ হতে ভারতে পাচারের প্রাক্কালে ৯.২ কেজি ওজনের ৫৭ টি স্বর্ণের বারসহ বানেছা খাতুন নামে এক আসামী আটক করা হয়। আটককৃত স্বর্ণের আনুমানিক সিজার মূল্য ৫,৭০,৪০,০০০/- (পাঁচ কোটি সত্তর লক্ষ চল্লিশ হাজার) টাকা। পরে উদ্ধারকৃত স্বর্নের বার ও আসামীকে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে শনিবার সন্ধ্যা ৭টার সময় বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মামুন খান জানান, এইমাত্র বিজিবি সদস্যরা স্বর্ণেরবারসহ বানেছা নামে এক স্বর্ণ পাঁচারকারিকে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করেছেন। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে রবিবার সকালে তাকে যশোর আদালতে প্রেরণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here