মাধবপুরে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

0
160
মাধবপুরে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

মঈনুল হাসান রতন হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের মাধবপুরে গরুর জন্য ঘাস কাটতে হাওরে গিয়ে বজ্রপাতে সিরাজ উদ্দিন (৫৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার শাহজাহান ইউনিয়নের উত্তর সুরমা গ্রামের পশ্চিমে হাওরে এ ঘটনা ঘটে।নিহত কৃষক সিরাজ উদ্দিন উত্তর সুরমা গ্রামের মৃত সাজ উদ্দিনের ছেলে।মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল হোসেন, সিরাজ মিয়া শুক্রবার সকালে গ্রামের পাশে হাওরে গরুর জন্য ঘাস কাটতে যান। হঠাৎ বৃষ্টিসহ বজ্রপাত শুরু হয়। এসময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। খবর পেয়ে স্বজনরা লাশ উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসে।

হবিগঞ্জের মাধবপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক তরুণীর মৃত্যু
মঈনুল হাসান রতন হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের মাধবপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার বহরা ইউনিয়নে পানিহাতা গ্রামের নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। এদিন বিকালেই তার দাফন করা হয়েছে। মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এএইচ এম ইশতিয়াক আল মামুন বলেন, তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তার করোনা ছিল কি না তা বলা যাবে না।তিনি জানান, বুধবার ওই তরুণী জ্বর, কাশি নিয়ে মাধবপুর হাসপাতালে আসেন। পরে সেখানে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে যান।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়। পরে বিকালে গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।এ ব্যাপারে বহরা ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান জানান কয়েক দিন ধরে তরুণী জ্বর, কাশিতে ভুগছিলেন। বুধবার তাকে হাসপাতালে নিয়ে ডাক্তার তাকে ভর্তির পরামর্শ দেন। কিন্তু স্বজনরা বাড়ি নিয়ে আসেন। তবে সে করোনা আক্রান্ত কি না পরীক্ষার জন্য হাসপাতাল থেকে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠায়।স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানান, ওই দিন ওই তরুনীসহ তিন জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। রিপোর্টের জন্য সিলেট পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পৌঁছার আগে সে করোনা আক্রান্ত ছিল কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন জানান, শুনছি সে টাইফয়েড আক্রান্ত ছিল। জ্বর কাশি শুরু হলে তার পরিবার ও প্রতিবেশীরা স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টিনে চলে গেছেন। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here