ইসরাইলে হামলায় ব্যবহৃত নতুন ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন ফিলিস্তিনের

0
9

খবর ৭১ঃ ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন ইসলামী জিহাদের সশস্ত্র শাখা আল-কুদস ব্রিগেড নিজেদের তৈরি নতুন ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করেছে। ইসরাইলের অধিকৃত অঞ্চল লক্ষ্য করে নিক্ষেপের মাধ্যমে বদর-৩ নামের এ ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করা হয়।
এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে আল-কুদস ব্রিগেড।
এতে বদর-৩ নির্মাণ করতে এবং তা ইসরাইল অধিকৃত আশকেলন নগরীর বিভিন্ন অবস্থান লক্ষ্য করে ছুঁড়তে দেখা যায়।
প্রকাশিত ভিডিও ফুটেছে দেখা যায়, চলতি মাসের ৪ এবং ৫ তারিখে অন্ধকার আকাশে অন্তত চারটি বদর-৩ ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়া হয়েছে। এ নগরীটি তেল আবিবের ৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত। গাজা উপত্যকা এবং ইসরাইলের মধ্যে যে প্রাচীর দেয়া হয়েছে তা এ থেকে এ নগরী মাত্র ১৩ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত।

এর আগে একই মডেলের ক্ষেপণাস্ত্র ৪০ কিলোগ্রাম বোমা বা ওয়ারহেড বহন করতে পারলেও বদর-৩ বহন করতে পারে আড়াইশ কিলোগ্রাম বোমা। বোমা বহনের সক্ষমতা এক লাফে বাড়িয়ে তোলার মধ্য দিয়ে আল কুদস ব্রিগেডের প্রযুক্তিগত দক্ষতাই প্রমাণিত হচ্ছে।
এদিকে ইসরাইলের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে আল-কুদস ব্রিগেড বলেছে যে, এরপর যা আসছে তা হবে আরও অনেক বড় ও শক্তিশালী।
এদিকে মিসরের মধ্যস্থতায় সোমবার স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৪টা থেকে শুরু হয়েছে অস্ত্রবিরতি। তবে ইসরাইল এতে পাত্তা না দিয়ে গাজায় হামলা অব্যাহত রেখেছে।
সোমবার সকালে ইসরাইলি যুদ্ধবিমান দক্ষিণ গাজার খান ইউনুসের একটি আবাসিক ভবন সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিয়েছে। জবাবে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসও ইসরাইলি শহর ও জনবসতিতে আবার রকেট নিক্ষেপ করেছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরাইলি হামলার কারণে ১৪৬ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন এবং গাজা উপত্যকার বিভিন্ন এলাকায় ১৫টি আবাসিক ভবন সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here