বিশ্বের জনপ্রিয় ও বিলাসবহুল নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান বিএমডব্লিউয়ের সেভেন সিরিজ এখন বাংলাদেশে

0
38
বিশ্বের জনপ্রিয় ও বিলাসবহুল নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান বিএমডব্লিউয়ের সেভেন সিরিজ এখন বাংলাদেশে
ছবিঃ সংগৃহীত

খবর৭১ঃ

বিশ্বের জনপ্রিয় ও বিলাসবহুল নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান বিএমডব্লিউয়ের সেভেন সিরিজের সেডান গাড়ি এখন বাংলাদেশে। সেভেন সিরিজ এলসিআই (বিএমডব্লিউ-৭৪৫ এলই) মডেলের এই গাড়িগুলো দেশের বাজারে নিয়ে এসেছে বাংলাদেশে ব্র্যান্ডটির একমাত্র পরিবেশক এক্সিকিউটিভ মোটরস লিমিটেড।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিএমডব্লিউ শো রুমে গাড়িটি আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করে এক্সিকিউটিভ মোটরস। এসময় প্রতিষ্ঠানটির অপারেশন বিভাগের পরিচালক দেওয়ান মুহাম্মদ সাজিদ আফজাল, আফটার-সেলস বিভাগের পরিচালক বজলুল করিম, ব্যবস্থাপক (সেলস) রবিউল ইসলামসহ প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে গাড়িটির বিভিন্ন দিক তুলে ধরে রবিউল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের বাজারের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে এই মডেল। গাড়িটির যাত্রীরা আরামদায়কভাবে বসার জন্য পাচ্ছেন প্রশস্ত একটি জায়গা। ১৭.২৫ ফুট দীর্ঘ এই ফ্ল্যাগশিপ গাড়িটি সেডানের আগের মডেলগুলো থেকে ২২ মিলিমিটার লম্বা।

এছাড়াও এতে আছে ফুয়েল হাইব্রিড সুবিধা। ফলে পেট্রোল ইঞ্জিন অথবা ইলেকট্রিক মোটর কিংবা দুটি পদ্ধতিতেই চালানো যাবে গাড়িটি। এক্স ফিচারের মাধ্যমে চারটি চাকাতেই শক্তি সরবরাহ করতে পারে এর ইঞ্জিন। টুইন পাওয়ার টার্বো প্রযুক্তিসম্পন্ন ২৯৯৪ সিসির গাড়িটির গতি প্রতি ঘণ্টায় শূন্য থেকে ১০০ কিলোমিটারে পৌঁছতে সময় নেবে মাত্র ৫.১ সেকেন্ড। প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২৫০ কিলোমিটার গতি তুলতেও সক্ষম বিএমডব্লিউ সেডান সেভেন সিরিজ এলসিআই। তবে ইলেকট্রিক মুডে প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৪০ কিলোমিটার গতি হবে এটির। চালকের সুবিধার জন্য এতে আছে ভয়েস নেভিগেশন ফিচার, ইন ডিসপ্লে রিমোট কীসহ বিভিন্ন ফিচার।

অনুষ্ঠানে সাজিদ আফজাল বলেন, বাংলাদেশে বিলাসবহুল গাড়ির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ইতোমধ্যে বিএমডব্লিউ বাংলাদেশে দুর্দান্ত ড্রাইভিং অভিজ্ঞতা এবং আভিজাত্যের আদর্শ প্রতীক হিসেবে নিজেদের চলমান ধারা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছে। বাংলাদেশকে হাই অ্যান্ড ভেহিক্যালের উপযুক্ত গন্তব্যস্থল হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বিএমডব্লিউ সেভেন সিরিজ মডেলের নতুন গাড়ি উন্মোচনের পাশাপশি বিশ্বমানের সেবা নিশ্চিত করেছি।

বিএমডব্লিউ-৭৪৫ এলই মডেলের এই গাড়িটির বাংলাদেশের বাজারে মূল্য ধরা হয়েছে দুই কোটি ৫০ লাখ টাকা। গাড়িটির গ্রাহকরা পাঁচ বছরের ফ্রি সার্ভিস, যন্ত্রাংশ, রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতের সুবিধা পাবেন বলে জানায় এক্সিকিউটিভ মোটরস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here