পাহাড়ে গোলাগুলি, ৩ জনের লাশ উদ্ধার

0
145

খবর৭১: বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক ও মগ বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী পাহাড় থেকে তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয়রা জানায়, আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে রোয়াংছড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের পাইখ্যং পাড়ায় পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক) ও মগ লিবারেশন পার্টির (মগ বাহিনী) মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। সকালে সশস্ত্র সংগঠনগুলোর দুপক্ষের অস্ত্রধারীদের মধ্যে কয়েক দফায় থেমে থেমে গোলাগুলি হয়। খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলের আশপাশে অবস্থান নেয়।

এদিকে গোলাগুলির পর ঘটনাস্থলসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেন শ্রমিকরা।

এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনার পার্শ্ববর্তী পাহাড় থেকে তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে নিহতদের নাম তাৎক্ষণিক পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্রের দাবি, সশস্ত্র দুগ্রুপের মধ্যে গোলাগুলিতে একজন মোটরসাইকেলচালক গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। পরবর্তীতে তাদের প্রতিপক্ষ গ্রুপের সদস্য ধারণা করে গুলি করে হত্যা করা হয়। নিহতরা তিনজনই ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের চালক। এদের বাড়ি রোয়াংছড়ি উপজেলার রনিন পাড়া এলাকায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রোয়াংছড়ি থানার এসআই মোহাম্মদ শাকিল জানান, গুলিবিদ্ধ তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশগুলো বান্দরবান হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে নিহতদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। শুনেছি নিহতরা ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন।

রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. খোরশেদ আলম চৌধুরী বলেন, গুলিবিদ্ধ তিনজনের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সশস্ত্র দুগ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here