বর্তমান নির্বাচন কমিশনের ক্ষমতা নেই সুষ্ঠ নির্বাচন করার: ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল

0
177

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: বর্তমান নির্বাচন কমিশন এই সরকার গঠন করেছে। তাদের সেই শক্তি নাই এই সরকার থাকায়কালীণ ঠিক মতো ও সুষ্ঠু নির্বাচন করার। তাই তত্ত্বাবধায়ক ও নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করে এবং নতুন নির্বাচন কমিশন পরিবর্তন করে,নতুন কমিশনকে সকল ব্যবস্থা গ্রহনের মধ্যদিয়ে গ্রহণ যোগ্য নির্বাচন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোববার ঠাকুরগাঁও মির্জা রুহুল আমিন মিলনায়তনে সদর উপজেলা বিএনপির সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সরকারের সমালোচনা করে বলেন, এই সরকার ২৪ ঘন্টায় আমাকে গালিগালাজ করে আমাকে মিথ্যাচার করেন। আমি যা বলি তা তাদের গায়ে সহ্য হয় না তাই তারা মিথ্যাচার করতে থাকেন।

দলটির এই নেতা তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ ও আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে তিনি বলেন, বর্তমান এই অবৈধ সরকারের তথ্যমন্ত্রীও সারাক্ষণ একই কাজ করেন। তিনিও সারাক্ষণ মিথ্যাচার করতেই থাকেন। অন্যদিকে ওবায়দুল সাহেব তো রয়েছেনই।

আমরা এই জাতি একাটা ক্রান্তিলগ্নে উপস্থিত হয়েছি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আগামী নির্বাচনের মধ্যদিয়ে সিদ্ধান্ত হবে যে এই দেশে গণতন্ত্র, স্বাধীনতা ও মানুষের অধিকার থাকবে কিনা। মানুষ ভোট দিতে পারবে কি পারবে না। তাই আমাদের সমস্ত শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ ও সকল জনগণকে একত্রিত করে আমরা এই দাবনবিয় সরকার যে আমাদের সমস্ত সংসারকে তছনছ করে দিয়েছে। দেশকে তছনছ করে দিয়েছে। তাকে সরিয়ে জনগণের দ্বারা নির্বাচিত কল্যানমূলক সরকার নিয়ে আসতে হবে।

ফখরুল বলেন, আমরা পরিষ্কার করে বলে দিয়েছি এই সরকারের অধিনে কোন নির্বাচন নয়। সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়েই নতুন নির্বাচনের মধ্যমে দেশে উন্নয়ন, শান্তি ও সমৃদ্ধির বাংলাদেশ বিনির্মানের জন্য লড়াই করতে হবে। তাই আমরা ১০ ও ২৭ দফা দাবি দিয়েছি। সেই ২৭ দফার মধ্যদিয়ে আমরা এই দেশের আমুল পরিবর্তনের কথা বলেছি। সেখানে গণতন্ত্র, আইন-আদালত, মানুষের জীবন জীবিকার নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আমরা ২৭ দফা দিয়েছি। তাই সমস্ত অন্যায় ও অবৈধকে পরাজিত করে সত্যিকার অর্থে একটি শান্তি ও সুন্দর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে দলটির সকলকে শপথ গ্রহণ করার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিন, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তারিক আদনান, যুব দলের সভাপতি আবুনুর চৌধুরী ও অন্য নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here