দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক সহযোগিতায় সূচনা হবে নতুন যুগের

0
24

খবর৭১ঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর বর্তমান বৈশ্বিক ভূ-রাজনৈতিক উন্নয়নের পরিপ্রেক্ষিতে অত্যন্ত ইতিবাচক ফলাফল দেবে। প্রধানমন্ত্রীর এই সফর দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক সহযোগিতার নতুন যুগের সূচনা করবে। তাৎপর্যপূর্ণ এই সফর ঘিরে দুদেশের সাবেক পররাষ্ট্র সচিব আর বিশেষজ্ঞরা এমনটাই প্রত্যাশা করছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে তিন দিনের সরকারি সফরে ৫ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লি পৌঁছানোর কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানাবেন। পাশাপাশি তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে।

সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কয়েকজন মন্ত্রী, উপদেষ্টা, সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সমন্বয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন। এছাড়া বাংলাদেশের ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধিরাও প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে তাঁর সঙ্গে থাকবেন।

সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা করবেন। প্রধানমন্ত্রী ৬৬০ মেগাওয়াট রামপাল পাওয়ার প্ল্যান্টের প্রথম ইউনিটের উদ্বোধন করবেন। এছাড়া ভারতীয় ব্যবসায়ী সম্প্রদায় এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিদের উদ্দেশে ভাষণসহ একাধিক কর্মসূচিতে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের বিষয়ে উভয় দেশের সাবেক কূটনীতিক, ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকরা আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তারা বলছেন, এই সফর দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক সহযোগিতাকে জোরদার করবে। এছাড়া ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উদ্বুদ্ধ করবে।

কূটনীতিকরা বলছেন, উভয় প্রধানমন্ত্রী তাদের বৈঠকে যোগাযোগ, বাণিজ্য,পানি বন্টন থেকে শুরু করে দ্বিপাক্ষিক এবং আঞ্চলিক বিষয়গুলো আলোচনা করবেন। এই সফর দুই দেশের মধ্যে অনেক সমস্যা সমাধানে সাহায্য করবে। অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় ভারত ও বাংলাদেশকে অনেক কাছাকাছি নিয়ে আসবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here