শৈলকুপায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

0
27

রাব্বুল ইসলাম, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার শেখরা গ্রামে সামাজিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। সেসময় ভাংচুর করা হয় বেশ কয়েকটি বাড়িঘর।

স্থানীয়রা জানায়, গত ৫ জানুয়ারি উপজেলার নিত্যানন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন ও বর্তমান চেয়ারম্যান মফিজ হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। রোববার বিকেলে শেখরা বাজারে ফারুক হোসেনের সমর্থক মাখনকে মারধর করে মফিজ হোসেনের সমর্থকরা। এরই জের ধরে সোমবার সকালে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। এ সময় ভাংচুর করা হয় বেশ কয়েকটি বাড়িঘর। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। পরে সেখান থেকে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করে।
এ ব্যাপারে বর্তমান চেয়ারম্যান মফিজ উদ্দিনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যস্ত আছেন বলে জানান।

সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন বলেন, আমার লোকজনকে মারধর করার পর এ ঘটনা ঘটেছে। মফিজের লোকজন আমার লোকের বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। আমরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
শৈলকুপা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, কয়েকজন আহত হয়েছে। ঘটনা শোনার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন পক্ষ অভিযোগ দেয়নি অভিযোগ দিলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here