ঋণ পরিশোধে শ্রীলংকাকে আরও এক বছর সময় দিল বাংলাদেশ

0
17

খবর৭১ঃ দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে শ্রীলংকাকে দেওয়া ঋণ পরিশোধের মেয়াদ আরও এক বছর বাড়িয়েছে বাংলাদেশ।

রোববার বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্ষদ সভায় এ সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিচালক, ডেপুটি গভর্নর ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের নির্বাহী পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

পর্ষদ সভায় থাকা বাংলাদেশ ব্যাংকের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে সংকটে পড়া শ্রীলংকাকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ২০ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছে। তারা ঋণের ওই অর্থ পরিশোধ করতে পারছে না। উল্টো বাংলাদেশের কাছে আরও ঋণ চেয়েছিল। কিন্তু শ্রীলংকাকে নতুন ঋণ দেওয়া হয়নি। তবে আগের ঋণ পরিশোধের মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ানো হয়েছে।

বৈঠক শেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, এখন শ্রীলংকাকে চাপাচাপি করে কোনো লাভ হবে না। তাই ঋণ পরিশোধে আরও এক বছর সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। সুতরাং বাংলাদেশ থেকে নেওয়া ২০ কোটি ডলার ঋণ পরিশোধে আরও এক বছর সময় পেল দেশটি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং সেন্ট্রাল ব্যাংক অব শ্রীলংকার মধ্যে দ্বিপক্ষীয় কারেন্সি সোয়াপ চুক্তির আওতায় দেশটির অনুকূলে তিন দফায় ২০ কোটি ডলার ছাড় করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে দেশটির সরকারের গ্যারান্টি রয়েছে। তিন মাস মেয়াদি কারেন্সি সোয়াপ হলেও চুক্তিতে এক বছর পর্যন্ত বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে। ফলে তিন মাস পরপর এক বছর পর্যন্ত এ ঋণের মেয়াদ এমনিতেই বাড়বে। এ ক্ষেত্রে লন্ডন আন্তঃব্যাংক অফার রেট বা লাইবরের সঙ্গে দেড় শতাংশ যোগ করে সুদ পাবে বাংলাদেশ। অর্থ ছাড়ের পর থেকে সুদ ও পরিশোধের সময় হিসাব করা হবে। বর্তমানে লাইবর রেট ১ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, প্রথম দফায় গত বছরের ১৯ আগস্ট ৫ কোটি ডলার ছাড় করে বাংলাদেশ ব্যাংক। দ্বিতীয় দফায় ১০ কোটি ডলার দেওয়া হয় গত বছরের ৩০ অক্টোবর। বাকি ৫ কোটি ডলার দেওয়া হয় গত বছরের নভেম্বরে। শ্রীলংকাকে দেওয়া ঋণ বাংলাদেশি মুদ্রায় এক হাজার ৭২৪ কোটি টাকা। যে অর্থ যেদিন ছাড় হয়েছে, ওই দিন থেকে মেয়াদ হিসাব হবে। ফলে বিদ্যমান চুক্তির আওতায় চলতি বছরের আগস্ট, অক্টোবর ও নভেম্বরের মধ্যে সুদসহ অর্থ ফেরত দিতে হবে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগের সময়ের সঙ্গে আরও এক বছর যুক্ত হবে এখন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here