দক্ষিণী সিনেমার সাফল্যের কারণ জানালেন সঞ্জয় দত্ত

0
33

খবর৭১ঃ ক্যানসারকে জয় করে অভিনয়ে নিয়মিত হয়েছেন সঞ্জয় দত্ত।

বলিউডের মুন্নাভাইকে এবার দেখা গেল ভয়ঙ্কর এক রূপে। সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত কন্নড় সিনেমা ‘কেজিএফ ২’ -এ আধিরা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

যশের রকি চরিত্রের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দারুণ সফল সঞ্জয়ের আধিরা, যা বিমোহিত করেছে দর্শকদের।

এদিকে প্রথমদিনের মতো দ্বিতীয় দিনেও সাফল্য অব্যাহত ‘কেজিএফ ২’ – এর।

বিশ্বব্যাপী দ্বিতীয় দিনে ছবিটি আয় করেছে ১২৫ কোটি রুপি!

শুধু ভারতেই দুই দিনে এর আয় ২৫০ কোটি রুপি ছাড়িয়েছে। আর হিন্দি ভার্সনে ছবিটি আয় করেছে ১১৮ কোটি রুপি!

কন্নড় হয়েও শাহরুখ-সালমানদের বলিউড সিনেমাকে একরকম উড়িয়ে দিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ‘কেজিএফ ২’।

আর আগে আরেক দক্ষিণী সিনেমা ‘আরআরআর’ ভারতে সিনেমাজগতে তুমুল ঝড় তুলে।

ভারতে দক্ষিণী সিনেমার এমন সাফল্যের রহস্য কি জানতে চাওয়া হয় সঞ্জয় দত্তের কাছে।

তিনি জানালেন, বলিউডে আগের মতো হিরোইজম নেই বলে দক্ষিণী সিনেমাগুলো এতো সাফল্য পাচ্ছে। নায়ককে পর্দায় দর্শকদের চাহিদামতো উপস্থাপন করতে পারছে না বলিউড।

ব্যাখ্যা দিয়ে সঞ্জয় দত্ত বলেন, ‘দক্ষিণ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি কখনো হিরোইজম ভুলে যায়নি। কেননা হিরোইজম সবসময় থেকেই যায়। আমি মনে করি এটা গুরুত্বপূর্ণ। যেটা আমরা বলিউড কিছুটা ভুলে গেছি। একজন নায়কের এন্ট্রি হওয়া উচিত মনোমুগ্ধকরভাবে। যখন নায়ক হাঁটবে তখন ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক থাকা লাগবে, শিস বাজাতে হবে। তবেই না তাকে নায়ক মনে হবে। যেগুলো বলিউডে অনেক বছর ধরেই মিসিং।

এরপর ‘খলনায়ক’ খ্যাত তারকা বলেন, ‘বলিউডে আগে এটা বেশ ছিল। যেমন জনকবাজি, খলনায়ক সেখানে এন্ট্রি এভাবেই ছিল। এটা এখন দক্ষিণী সিনেমাতে হয়। আমার মনে হয়, এখন থেকে এটা ওখানে ঘটতেই থাকবে। ওরা প্রতিটি চরিত্রের জন্য হিরোইজম রাখে। দর্শক পছন্দ করে।’

এক্ষেত্রে ভিলেনকে উপস্থাপনের বিষয়টিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ জানান সঞ্জু বাবা।

বলেন, ‘অমরেশপুরী এবং অতীতের অন্যান্য অভিনেতাদের দিকে তাকান তারা খুবই ভালো কাজ করেছেন। তারা শক্তিশালী ভিলেন ছিলেন। একজন শক্তিশালী ভিলেন ছাড়া একজন নায়ক শক্তিশালী হতে পারে না। এমনকি হলিউডের অ্যাকশন, থ্রিলার বা সুপারহিরোই হোক ভিলেন মানেই অন্য কিছু। থানোস কয়েক মিনিটের মধ্যে বিশ্ব শেষ করার ক্ষমতা রাখে। থানোস না থাকলে প্রতিশোধকারীরা কীভাবে নায়ক হতে পারে?।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here