বন্ধু ও বন্ধুত্ব : শিক্ষার্থীদের ভাবনা

0
65

মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ: ‘বন্ধু’ ছোট এ শব্দের মাঝে মিশে আছে যেন পৃথিবীর সব নির্ভরতা। বন্ধুত্ব মানেই জীবনের সবুজতম সম্পর্ক। বন্ধু মানে দুটি দেহের একটি প্রাণ। আরও সহজ করে বলতে গেলে আত্মার কাছাকাছি যে বাস করে, সেই বন্ধু। সু-সময় কিংবা অসময়ের সঙ্গী। কিশোর থেকে বৃদ্ধ সবাই বন্ধুত্বের কদর করেন। বলা হয়ে থাকে, যদি বন্ধু হও হাতটা বাড়াও। সেই হৃদয়ের আহবানে মিলেছে সব বন্ধুদের হাত। সত্যিকারার্থেই বন্ধুত্ব এক অদ্ভুত সম্পর্কের নাম। রক্তের হয়তো কোনো লেনদেন থাকে না এ ক্ষেত্রে, তবু সে সম্পর্কের চেয়েও বেশি আবেগের হয়ে ওঠে বন্ধুত্ব। তবে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের বন্ধুত্বটাও একটু অন্যরকম হয়। তেমনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের বন্ধু ও বন্ধুত্ব নিয়ে ভাবনাগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ক্যাম্পাস সাংবাদিক মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ।

পথচলার সঙ্গী ‘বন্ধু’

পথচলার সঙ্গী হিসেবে কম-বেশি প্রত্যেকেই একজন বন্ধুকে পেতে চান। এমন একজন বন্ধু, যার সঙ্গে মন খুলে প্রতিটি কথা বলা যায়! কিন্তু সব সময় তা হয়ে ও উঠে না। আসলে সবারই আলাদা একটি বন্ধুমহল রয়েছে। এমনকি আপনার পথচলার সঙ্গী যা করতে পারেন না, সেটিও হয়তো পারেন আপনার কোনো প্রিয় বন্ধু। কিন্তু সমস্যা তখনই দেখা দেয় যখন আপনার ভালোবাসার মানুষ নিষেধাজ্ঞা দিয়ে বসেন বন্ধুর ওপর। সে ক্ষেত্রে কিন্তু দোটানায় পড়তে হয়। বয়স বাড়ার সঙ্গে বন্ধুত্বের পরিসর বাড়তে থাকে, বাড়তে থাকে দায়িত্বও। তাছাড়া বন্ধু বন্ধুই হয়। তবে দুজনের মধ্যে আন্তরিকতা থেকে যদি প্রেমের জন্ম নেয় তা দোষের কিছু নয়। কিন্তু কোনোভাবেই একতরফা প্রেমের জন্য বন্ধুত্বের সম্পর্কে নষ্ট হতে দেওয়া ঠিক নয়। বন্ধুদের সঙ্গে কেবল আনন্দই মূল কথা নয়, বিপদে তার পাশে দাঁড়ানো, যথাসাধ্য সাহায্য করাও বন্ধুত্বের দাবী। বন্ধুই হোক আর পথচলার সঙ্গীই হোক, পরস্পরের প্রতি থাকতে হবে শ্রদ্ধা।

তমা ইসলাম
শিক্ষার্থী, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ

অটুট থাকুক ‘বন্ধুত্ব’

পূবাকাশের সূর্যটা আজ নতুন বার্তা নিয়ে আমাদের কাছে হাজির হয়েছে। সূর্যটা আজ ওঠেছে ভ্রাতৃত্ব আর সম্প্রীতির বন্ধন নিয়ে বন্ধুত্বের আহবানে। সে সূর্যের আলো আজ ছড়াবে সৌহার্দ্য আর ভালোবার রঙ। বন্ধু দিবসকে ঘিরে নানা কল্পনা জল্পনা থাকলেও প্রকৃত বন্ধু হল সে যিনি অপর বন্ধুর দুঃখে সমব্যাথী হয়, সুখকে সমানভাবে ভাগ করে নেয়। বন্ধুত্ব কোনো সূত্রের মাপকাটিতে মাপা যায় না। যে কথাগুলো গুরুজন বা পিতা-মাতাকে বলা যায় না। সে কথাগুলো আমরা প্রাণ খুলে বন্ধুর কাছে প্রকাশ করি। ভালো-লাগা, মন্দ-লাগা, সুখ-দুঃখের কথা বন্ধুর কাছে নির্ভয়ে মন খুলে বলা যায়। বন্ধুত্বের বন্ধনে কোনো স্বার্থ থাকে না। বন্ধুত্ব যতই পুরাতন হয়, ততই দৃঢ় হয়। জীবনের প্রয়োজনেই মানুষ বন্ধু খুঁজে নেয়। তবে একথাও ঠিক, সব বন্ধুর গুরুত্ব সমান হয় নয়। সত্যিকারের বন্ধুত্ব নিয়ে নানান মত থাকলেও একটি বেপারে সবাই একমত বন্ধু ছাড়া জীবন অসম্ভব। বন্ধু দিবসে তাই এই প্রার্থনা- অটুট থাকুক সকলের বন্ধুত্ব।

ফারহানা খানম রুপা
শিক্ষার্থী, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ

‘বন্ধুত্ব’ থাকুক আজীবন

ছোট্ট একটা পরিচয় থেকেই গড়ে উঠে বন্ধুত্ব। আর বাড়তে বন্ধুর সংখ্যা। ক্লোজ ফ্রেন্ড, বেস্ট ফ্রেন্ড এখন আবার জাস্ট ফ্রেন্ড ও রয়েছে। তবে সমসাময়িক সবার সাথেই বন্ধু সুলভ সম্পর্ক হয়ে যায়। বন্ধুর সঙ্গে মোটামুটি সব বিষয়ই সহভাগিতা করা যায়। তবে অবশ্যই তার আগে বন্ধুর মনমানসিকতাও যাচাই করে নেওয়া প্রয়োজন। কারণ আমি যেই ধরনের অবস্থার ভেতর দিয়ে যাচ্ছি আমার বন্ধুর অবস্থা তার বিপরীতও হতে পারে সেক্ষেত্রে সে আমার বুঝতে পারবেন না। বন্ধুকে নির্দ্বিধায় সবকিছু বলা গেলেও বিশেষ কিছু বা গোপনীয় কিছু বলার আগে ভেবে দেখা প্রয়োজন। আবার কোনো বন্ধু যদি নিজের কোনো ব্যক্তিগত কথা বলেও তাহলে তার বিশ্বাসকে সম্মান দেখানো উচিত। কোনো ভাবেই তার কথা অন্যদের সঙ্গের আলোচনা করা উচিত না। বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে মনমানসিকতা মিল আর মেলামেশার মাধ্যমে। তাই বন্ধুদের অবশ্যই সব কিছু বলা যায়। তবে কিছু বিষয় থাকে যা বন্ধুকে বলার আগে অবশ্যই তাকে যাচাই করে নেওয়া উচিত। বন্ধুকে খোলা মনে কিছু বললাম আর সে তা অন্যদের কাছে বলে দিল তাহলে তো আর গোপনীয়তা থাকলে না। তাই বন্ধুকে ভালোভাবে যাচাই করে তার সব কিছু বিবেচনা করে নিজের কথাগুলো বলা উচিত। আর এ বন্ধুত্বের সম্পর্ক আজীবন অটুট রাখা জরুরি।

রোফায়েদা নাফিসা ছোঁয়া
শিক্ষার্থী, ফিন্যান্স বিভাগ

ভালো থাকুক ‘বন্ধুত্ব’

জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী রাশেদ উদ্দীন আহমেদ তপুর কন্ঠে গীতিকার শিমুল সরকার লিখেছিলেন, “সুসম্পর্ক, দুঃসম্পর্ক, আত্মীয়-অনাত্মীয়, শত্রু-মিত্র, রক্ত সম্পর্কে কেউ বা দ্বিতীয়। সৎ-অসৎ, দূরের-কাছের, বৈধ-অবৈধ হাজারও এসব সম্পর্ক ভাঙ্গে,থাকে বন্ধুত্ব!” বাস্তবে বন্ধুত্ব হলো ঠিক এমনই একটা সম্পর্ক যেখানে থাকেনা রক্তের সম্পর্ক-স্বার্থের টান,থাকে আত্মার বন্ধন। কখনও কখনও সব সম্পর্ককে হার মানিয়ে যে সম্পর্কটি আমৃত্যু টিকে থাকে সেই সম্পর্কের নামই বন্ধুত্ব।বিপদে-আপদে, মন খারাপে, কারণে-অকারণে, সুসময়-দুঃসময়ে নির্দ্বিধায় সবসময় পাশে পাওয়া যায় আমাদের প্রাণপ্রিয় বন্ধুদের। বন্ধু মানেই আড্ডা, ট্যুর, গল্প আর ছবি তোলা। তবে করোনা মহামারীর এই কঠিন সময়ে বন্ধুত্বে পড়েছে ভাটা। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিনিয়ত চলছে বন্ধু আড্ডা। লকডাউনের কারণে ঘরে আবদ্ধ থাকায় আমাদের প্রিয় বন্ধুদের সাথে সাক্ষাৎ হয় না। তবে ঘরে বসে বন্ধুমহলের সুখস্মৃতি স্মরণ করতে ভুলবে না কেউই। সবশেষে বন্ধুত্ব নামক সম্পর্কটির সাথে কখনও খারাপ শব্দটির ব্যবহার হয় না, বন্ধু মানেই ভালোকিছু।

অমিত পাল
শিক্ষার্থী, পরিসংখ্যান বিভাগ

বন্ধু নির্বাচনে সতর্ক হোন

বন্ধু মানে একসাথে পড়ালেখা করা সহপাঠীরা নয়, নয় একসাথে চলাফেরা করা সমবয়সীরা। এক কর্মক্ষেত্রে কাজ করা কলিগরাও নয়। বন্ধুর সংজ্ঞা যেমন কঠিন তেমন বন্ধু নির্বাচন করাও কঠিন। এক শ্রেণীতে পড়া, এলাকায় বাস করা সবাই বন্ধু নয়। তারা আপনার পরিচিত সহপাঠী, বাসিন্দা। বন্ধু তারা যাদের সাথে আপনি আপনার মনের সব কথা বলতে পারেন। কোন সমস্যায় পড়লে সাহায্য চাইতে পারেন। যে আপনার বিশ্বাস কখনও ভাঙবে না, আপনার আড়ালে আপনাকে নিয়ে বাজে বলবে না। বন্ধুরা একসাথে আড্ডা দিবে, গ্রুপ স্টাডি করবে, কারো বিপদে এগিয়ে আসবে, নিয়মিত যোগাযোগ রাখবে। আপনি কোন একটা কাজ করবেন আপনাকে উৎসাহ দিবে। আপনাকে সময় দিবে। আপনাকে কটাক্ষ করবে না। কখনও কারো নামে গীবত, গুজব ছড়াবে না। আপনার সুসময়ে যারা পাশে থাকে এবং দুঃসময়ে দূরে চলে যায় খোঁজ নেয় না এরা প্রকৃত বন্ধু হতে পারে না। এরা আপনার বন্ধু হয়েছে শুধু নিজের লাভের জন্য আপনাকে ব্যবহারের জন্য। এরা আপনাকে সফলতার পথে বাধার সৃষ্টি করে। আপনার মাঝে বদঅভ্যাস তৈরি করে। বিপদের মাঝে ঠেলে দিবে, সাহায্য করবে না। তাই বন্ধু নির্বাচনে সতর্ক হোন। বন্ধুর কাছ থেকে যেমন ব্যবহার আশা করেন তেমন ব্যবহার, সম্মান, ভালোবাসা আপনি তাকে দিন। বন্ধু দিবসের শুভেচ্ছা।

মাহফুজ রহমান
শিক্ষার্থী, অণুজীববিজ্ঞান বিভাগ

প্রকৃত বন্ধুর নামই ‘বন্ধুত্ব’

আমাদের জীবনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রকৃত বন্ধুর উপস্থিতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বন্ধু যদি প্রকৃত হয় তাহলে জীবন এর পথচলা গুলো মসৃণ হয়ে যায় কিন্তু সেই বন্ধুই যদি গোপন শত্রু হয়ে যায় তাহলে হয়ে যায় দুর্বিষহ। আমাদের দৈনন্দিন চলার পথে সব থেকে বেশী সময় কাটানো হয় বন্ধুদের সাথে। তাই খাঁটি বন্ধু প্রতিটি মানুষের জীবনেই আবশ্যক। বর্তমানে বন্ধুত্ব হয়ে গেছে অনেক সহজলভ্য ফেসবুকে ইনস্টাগ্রামে মাত্র এক ক্লিকেই হয়ে যায় একজন আরেকজনের বন্ধু এখানে কাউকে ভালো করে চিনা জানার একসাথে চলার সুযোগ থাকে না। আমাদের স্কুল জীবনের বন্ধুত্ব গুলো খুবই নিঃস্বার্থ হয়। কেননা তখন খেলতে খেলতেই একটি আঙ্গুলের মিলের মাধ্যমে বন্ধুত্ব হয়ে যায়। বর্তমানে আমাদের ব্যস্ত সময়ে আসল বন্ধু চেনার সময়টুকুও নেই। তাই বন্ধুর বেশে প্রতারণার হারও ক্রমেই বাড়ছে। বন্ধুর উপর বিশ্বাসে মরিচা ধরছে। এত এত বন্ধুর ভিড়ে আসল বন্ধুটিকে চিনে নেওয়ার কাজটি একটু কঠিনই বটে। বন্ধু দিবস শুধু একটি দিনে বন্ধুকে পেট পুরে খাইয়ে বা দামী উপহার দিয়ে একদিনেই শেষ হওয়ার মত কোন সম্পর্ক নয় বরং বছরের প্রতিটি দিন একে অপরের পাশে থাকার নামই বন্ধুত্ব।

মো. ওয়াকিল হাসান
শিক্ষার্থী, একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ বিভাগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here