চীনের সাবমেরিন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো স্থানে হামলা সম্ভব

0
55

খবর৭১ঃ চীনের সেনাবাহিনীতে নতুন যুক্ত করা পরমাণু শক্তিচালিত সাবমেরিনে দেশটির সবচেয়ে শক্তিশালী ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপন করা হয়েছে।

এই সাবমেরিন-লঞ্চড্ ব্যালিস্টিক মিসাইল (এসএলবিএম) দিয়ে আমেরিকার মূল ভূখণ্ডের যে কোনো স্থানে আঘাত হানা সম্ভব বলে এক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে।খবর সাউথ চায়না পোস্টের।

চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির নৌবাহিনীর ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে গত শুক্রবার পরমাণু শক্তিচালিত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র বহনে সক্ষম সাবমেরিন- এসএসবিএন প্রদর্শন করা হয়।

এই সাবমেরিন থেকে ১০ হাজার কিলোমিটার দূরবর্তী লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম জেএল-৩ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা যায়।
চীনা নৌবাহিনীর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে এ তথ্য জানিয়েছে।

সূত্রটি আরও জানিয়েছে, আপগ্রেড করার আগে সাবমেরিনটিতে জেএল-২ ক্ষেপণাস্ত্র বসানো ছিল, যা দিয়ে শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্ব অংশে আঘাত করা সম্ভব হতো।

কিন্তু এখন এটি দিয়ে গোটা আমেরিকা মহাদেশের যে কোনো স্থানে হামলা করা যাবে। জেএল-৩ পরমাণু ওয়্যারহেডসহ নানা ধরনের ওয়্যারহেড বহন করতে সক্ষম। জেএল-২ ক্ষেপণাস্ত্রেরও একই সক্ষমতা আছে।

আমেরিকার ফোর্বস ম্যাগাজিন গত বছর মে মাসে জানিয়েছিল, চীনের প্রতিটি জেএল-২ ক্ষেপণাস্ত্রে হিরোশিমায় নিক্ষিপ্ত লিটল বয় বোমার চেয়ে ৬৭ গুণ ধ্বংস ক্ষমতাসম্পন্ন পরমাণু ওয়ারহেড বসানো সম্ভব।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিঙ্কেন সম্প্রতি চীনকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার পরই বেইজিং-এর এই নতুন সামরিক শক্তি প্রকাশ করা হলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here