বেনাপোল সীমান্তের শুন্যরেখা হতে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

0
22

শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল : বেনাপোলের রঘুনাথপুর সীমান্তের শুন্যরেখা হতে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার করেছেন পোর্ট থানা পুলিশ। মঙ্গলবার বেলা ১২টার সময় ভারত সীমান্তরেখা কাটাতারের বেড়ার ১৫ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তর বেনাপোল পোর্ট থানার রঘুনাথ বিওপির অধিনস্থ সীমান্ত এলাকা থেকে শরীরে ক্ষত-বিক্ষত ও বস্ত্রহীন এ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতের আনুমানিক বয়স ৪০ বছর।
যশোরের নাভারন সার্কেল এ এসপি জুয়েল ইমরান, বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কামাল হোসেন ভুঁইয়া, যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল সাহেদ মিনহাজ সিদ্দিকি ও উপ-পরিচালক সাজ্জাত হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
লাশ উদ্ধারের সময় নিহতের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন এবং দুই পা বাঁধা ছিলো বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা মন্তব্য করে বলেন, এই সীমান্ত এলাকা দিয়ে এখন আর আগের মতো ভারত থেকে চোরাইপণ্য আসেনা। যেকারণে ভারতের বিএসএফ সদস্যরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে সন্দেহ করা যাচ্ছেনা। তবে, স্থানীয় হুন্ডি, গোল্ড, ফেন্সিডিল ও ইয়াবা ব্যবসায়ীসহ ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে বিভিন্ন পণ্য আনয়নকারি চোরাচালানী মহাজনদের উপর সন্দেহের তীর ছোড়েন তারা। বলেন, বিভিন্ন সময়ে দেখেছি ভিন্ন এলাকার চোরাচালানী বা দেশ থেকে ওপারে চলে যাওয়ার সময় কিছু বিত্তবানরা এখানে এসে এখানকার বড় বড় চোরাচালানীদের মাধ্যমে নগদ বহু টাকা ও স্বর্ণেরবার ওপারে পাঠানোর জন্য হস্তান্তর করে। সেখানে সুযোগ নিয়ে সম্পূর্ণ সম্পদ আত্মসাৎ করতে হত্যা করে সম্পদের মালিককে আর উদোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপাতে লাশ ফেলে দেওয়া হয় সীমান্ত পাড়ে। বোঝানো হয় ভারতীয় বিএসএফ তাদেরকে হত্যা করে এপারে ফেলে দিয়েছে।

যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল সাহেদ মিনহাজ সিদ্দিকি বলেন, আমরা বিএসএফ’র সঙ্গে কথা বলেছি তাঁরা এই ব্যক্তিকে হত্যা করেনি বলে জানিয়েছেন। যশোরের নাভারন সার্কেল এএসপি জুয়েল ইমরান বলেন, লাশটি ভারত সীমান্তের নিকট থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এই মুহুর্তে কিছু বলা যাচ্ছেনা। সুরতহাল রিপোর্টের জন্য যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশ ময়না তদন্ত শেষে বোঝা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here