সেপ্টেম্বরের ৯ দিনেই ডেঙ্গুতে ১২৩ জনের মৃত্যু

0
84

খবর ৭১: ডেঙ্গুর ভয়াবহতা কমছেই না। অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে দেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়ংকর হয়ে উঠেছে। চলতি সেপ্টেম্বরের প্রথম ৯ দিনেই ডেঙ্গুতে ১২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন ২১ হাজার ৫২৭ জন। যা এর আগের তিন মাসের প্রথম ৯ দিনের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি। চিকিৎসকরা বলছেন, হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী এবং মৃত্যুর এই সংখ্যা অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য থেকে জানা যায়, জুন মাসে যেখানে পাঁচ হাজার ৯৫৬ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন, জুলাই মাসে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৪৩ হাজার ৮৫৪ জনে। আগস্টে ৭১ হাজারের বেশি রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

তবে জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগী তুলনামূলক কম ছিল। জানুয়ারিতে ৫৬৬ জন, ফেব্রুয়ারিতে ১৬৬ জন, মার্চে ১১১ জন, এপ্রিলে ১৪৩ জন, মে মাসে এক হাজার ৩৬ জন, জুনে ৫ হাজার ৯৫৬ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। জুনে সারা দেশে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। জুলাইয়ে ২০৪ জনের মৃত্যু হয়। আগস্টে মৃত্যু হয়েছে ৩৪২ জনের। মৃত্যুর দিক থেকে জানুয়ারিতে ৬ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৩ জন, এপ্রিলে ২ জন, মে মাসে ২ জন এবং জুনে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে।

চলতি বছর যে ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়বে তা গত মার্চ মাস থেকেই স্বাস্থ্য অধিদফতর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে সাবধান করে দিয়েছিল জরিপ করে। কিন্তু স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবধানতাকে তেমন পাত্তা দেয়নি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ডেঙ্গুর কারণে হাসপাতালে সাধারণ রোগী সেবা ব্যাহত হচ্ছে।

বছরের পর বছর ধরে বাংলাদেশে ডেঙ্গুর সংক্রমণ এবং এই রোগের ভাইরাস আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠার পরও সেদিকে নজর না দেয়ায় চলতি বছর ডেঙ্গু মারাত্মক হয়ে উঠেছে বলে জনস্বাস্থ্যবিদরা মনে করছেন।

তারা বলছেন, এক সময় বাংলাদেশে ডেঙ্গু মৌসুমি রোগ বলে মনে করা হলেও কয়েক বছর ধরে বছরজুড়েই এর প্রকোপ দেখা যাচ্ছে। এর ফলে এই রোগের চার ধরনের ভাইরাস আরও শক্তিশালী হয়ে উঠেছে এবং এটি দেশের সব জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here