সৈয়দপুরে ব্যবসায়ীদের নিয়ে ঈদ পুর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে এমপি আদেল

0
93

মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুর :
নীলফামারী- ৪ (সৈয়দপুর -কিশোরগঞ্জ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আহসান আদেলুর রহমান আদেল বলেছেন, প্রধান অতিথির বক্তব্য এমপি আহসান আদেলুর রহমান আদেল বলেন, চলতি বছর হচ্ছে নির্বাচনের বছর। ডিসেম্বরেরই হতে পারে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ফলে আগামি সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আমি বিগত ৪ বছরে আমার নির্বাচনী এলাকা সৈয়দপুর -কিশোরগঞ্জের উন্নয়নে এমপি হিসেবে কি কি কাজ করতে পেরেছি তা জানানো এবং এ বিষয়ে মূল্যায়নসহ জনগনের মতামত জানা প্রয়োজন। তিনি বলেন গত ৪ বছরে সৈয়দপুর- কিশোরগঞ্জ এলাকায় রেকর্ড পরিমাণ উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। যা অতীতে কেউ করতে পারেনি। বর্তমানে অনেক উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। আগামিতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে। এজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

বৃহস্পতিবার (৪ মে) রাতে শহরের সুলতান নগরে অবস্থিত ড্রিম প্লাস হেরিটেজ ও রিসোর্টে সৈয়দপুরের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে আয়োজিত ঈদ পুর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি ওইসব কথা বলেন।

সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান আদেলের প্রেস সেক্রেটারি মাহমুদ হাসান অয়নের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সৈয়দপুর উপজেলার জাপার আহ্বায়ক আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, এমপি’র স্থানীয় উপদেষ্টা ও পৌর জাতীয় পার্টির আহবায়ক কাজী ময়নুল ইসলাম, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত নীলফামারী জেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব গুলজার আহমেদ আশরাফী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য আদেল উপস্থিত অতিথিদের উদ্দেশ্যে বলেন, তার নির্বাচনী আসনের দুই উপজেলায় ২৭ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। ৭২ টি মসজিদ মাদরাসা ও মন্দিরের উন্নয়নে সহায়তা হিসেবে দেওয়া হয়েছে প্রায় ৩ কোটি টাকা। এছাড়া ১৫টি স্কুল ও কলেজে নতুন ভবন নির্মাণ ও ৩৩ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবকাঠামো সংষ্কার করা হয়েছে। কিশোরগঞ্জ স্টেডিয়ামের উন্নয়নে গ্যালারী ও সীমানা প্রাচীর নির্মানসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করা হয়েছে জানিয়ে জাতীয় পার্টির ওই সংসদ সদস্য সৈয়দপুর প্রসঙ্গে বলেন, সৈয়দপুরে রেল ও পৌরসভার মধ্যে জমি নিয়ে যে বিরোধ রয়েছে তা সমাধানের চেস্টা চলছে। এছাড়া রেলওয়ের পতিত জমিতে বসবাসকারীদের মাঝে সবসময় উচ্ছেদ আতঙ্ক বিরাজ করায় তিনি এর সুষ্ঠু সমাধানের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এনিয়ে সংসদেও কথা বলেছেন। তিনি বলেন প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ১২ টি ও সৈয়দপুরে ৮ টি সড়ক সংষ্কার করা হয়েছে। একইসাথে বিভাগীয় বরাদ্দে ১০ টি ও কৃষিভিত্তিক বরাদ্দে আরও ৫ টি পাকা সড়কসহ কাঁচা সড়কের ক্ষেত্রেও ইউনিয়নগুলোতে প্রায় ১০০ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার কাজ হয়েছে। বর্তমানে অনেক প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ চলমান রয়েছে। আগামি অর্থবছরেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।
ঈদ পুর্ণমিলনী অনুষ্ঠানে উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব জি এম কবির মিঠুসহ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেন, বাবুল হোসেন, বাদশা মিয়া, মো. জনি, এজাজ আহমেদ, নীলফামারী জেলা ক্লিনিক মালিক সমিতির সভাপতি ডা. দেলোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ডা. তাওহীদ ইমাম মুক্তা, গণি মৃধা প্রমুখ।

শেষে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আহসান আদেলুর রহমান আদেল উপস্থিত ব্যবসায়ী, সাংবাদিকসহ অন্যান্যদের নিয়ে নৈশভোজে মিলিত হন। এসময় তিনি সকলের সাথে কুশল বিনিময় করেন এবং অতিথিদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here