বিএনপির ৪৮ জনকে সাজার রায় ফরমায়েশি: প্রিন্স

0
106

খবর ৭১: ২০০২ সালে সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের দুটি মামলায় বিএনপির সাবেক এমপি ও কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ চারজনকে যাবজ্জীবন ও ৪৪ জনকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তবে এ রায় ‘ফরমায়েশি’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। তার অভিযোগ, ‘সরকারের নির্দেশে আদালত এ রায় দিয়েছেন।’

মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এমরান সালেহ প্রিন্স এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নির্মূল করতে বেছে বেছে রায় দেওয়া হচ্ছে। সারাদেশে গায়েবি মামলায় আবারও গণগ্রেফতার শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। রাজনৈতিকভাবে হেনেস্তা করতে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এ রায় দেওয়া হয়েছে।’

এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, ‘২০২১ সালে তৈরি করা আইনে এর আগেও হাবিবুল ইসলাম হাবিবকে ১০ বছরের সাজা দেওয়া হয়েছে। বিরোধী দলকে নির্মূলের জন্য বেছে বেছে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অবৈধ সরকারের নির্দেশেই রায় দেওয়া হচ্ছে। প্রধান বিচারপতিকে বন্দুকের জোরে সরিয়ে দেওয়াসহ আওয়ামী লীগ সরকারের নির্দেশে আদালতকে দিয়ে অনেক কিছুই করা হয়েছে ও হচ্ছে। এসব কার নির্দেশে হচ্ছে, সেটির জন্য বেশি লেখাপড়ার প্রয়োজনও পড়ে না। সাধারণ জনগণও তা বুঝে গেছে। শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার মামলায় আজকের দেওয়া রায়ও আওয়ামী সরকারের ইচ্ছার বাইরে হয়নি। আইন আদালতকেও সরকার প্রতিহিংসা চরিতার্থের রাজনীতির অনুষঙ্গ বানিয়ে ফেলেছে।’

রায় প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করেন দলের ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘সরকার ক্ষমতাসীন হয়েই দেশের নিম্ন আদালতকে কবজায় নিয়ে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে যে নির্মূলের নীতি অবলম্বন করেছে, আজকের রায় সেটিরই ধারাবাহিকতা। বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এ রায় ঘোষণার ঘটনা শুধু অবান্তর ও হাস্যকরই নয়, এটি সুদুরপ্রসারী মাস্টারপ্ল্যানেরই অংশ। আমরা আজকের এ রায়ের বিরুদ্ধে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং এর তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি।’

এমরান সালেহ প্রিন্স আরও বলেন, ‘পূর্বের বিচ্ছিন্ন ধারার হামলা-মামলা এখন নিরবচ্ছিন্ন ধারায় পরিণত হয়েছে। এক্ষেত্রে টার্গেট বিএনপি। বিএনপিকে ধ্বংস করতে না পারা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তাই ক্ষমতায় থেকে তিনি যা করছেন, তা চক্রান্তমূলক।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here