আপাতত প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়কে আয়কর দিতে হবে না

0
117

খবর ৭১: বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারের ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায় সংক্রান্ত আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত, আয়কর আদায় থেকে বিরত থাকতে আপিল বিভাগের আদেশ বহাল রেখেছেন সর্বোচ্চ আদালত। একইসঙ্গে আয়কর আদায় নিয়ে বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দায়ের করা ৪৬টি রিট হাইকোর্টে চূড়ান্ত শুনানির আদেশ বহাল রাখা হয়েছে। এর ফলে আপাতত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আয়কর দিতে হবে না। এছাড়া হাইকোর্টে এ সংক্রান্ত রিটগুলোর চূড়ান্ত শুনানি হতেও বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

৪৬টি রিট হাইকোর্টে চূড়ান্ত শুনানি করতে আপিল বিভাগের আদেশের বিরুদ্ধে রিভিউ আবেদনের শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার ওমর সাদাত ও ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ।

পরে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ বলেন, আপিল বিভাগ আগে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আয়কর আদায় নিয়ে দায়ের করা সবগুলো রিট হাইকোর্টে চূড়ান্ত শুনানি করার আদেশ দিয়েছিলেন। এই আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে রিভিউ আবেদন করেছিলেন রিটকারীরা। আজ রিভিউ আবেদন আপিল বিভাগ খারিজ করে দিয়েছেন। এর ফলে হাইকোর্টে রুলের শুনানি হতে বাধা নেই।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবী ব্যারিস্টার ওমর সাদাত বলেন, আপিল বিভাগে আমাদের রিভিউ পিটিশন ছিল। আপিল বিভাগ আজ রিভিউ খারিজ করে দিয়েছেন। বিচারপতি ফারাহ মাহবুবের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে অবিলম্বে রিট পিটিশনগুলো শুনানি করতে বলেছেন। একইসঙ্গে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারের ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তা নেওয়া যাবে না, এই আদেশও বহাল রেখেছেন।

এর আগে ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরকারের ১৫ শতাংশ হারে আয়কর আদায়ের দুই প্রজ্ঞাপন অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের অনুমতি (লিভ টু আপিল) দেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে এ আপিল নিষ্পত্তি না পর্যন্ত এ আয়কর আদায় থেকে বিরত থাকতে এনবিআরকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

২০০৭ সালের ২৮ জুন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে।

ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনুমোদিত প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় এবং অপরাপর বিশ্ববিদ্যালয় যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নয়, তাদের উদ্ভূত আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে আয়কর পুনর্নির্ধারণ করা হলো। ১ জুলাই থেকে এটা কার্যকর হবে। ’

২০১০ সালের ১ জুলাই এনবিআরের আরেক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ, বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ, বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বা শুধু তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে শিক্ষাদানে নিয়োজিত বেসরকারি কলেজ ও উদ্ভূত আয়ের ওপর প্রদেয় আয়করের হার হ্রাস করে ১৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হলো।’ এরপর বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ৪৬টি রিট করা হয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here